Main Menu

ছাত্রলীগ নেতাকে জবাই করে হত্যা: দায় স্বীকার করে দুই আসামির জবানবন্দি

নোয়াখালী প্রতিনিধি
নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য হাসিবুল বাশার কে (২৫) জবাই করে হত্যার কথা স্বীকার করে প্রধান আসামি হাসান ও ৩নম্বর আসামি জয় আদাালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

সোমবার ( ১১ জুলাই) বিকেল ৪টার দিকে দুই আসামি চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নবনীতা গুহ’র খাসকামরায় ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় এ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

এসব তথ্য নিশ্চিত করেন নোয়াখালীর পুলিশ সুপার (এসপি) মো.শহীদুল ইসলাম। তিনি আরো বলেন, গতকাল রোববার (১০ জুলাই) রাতে ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার বাড়াই গোবিন্দ এলাকা থেকে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের ছাত্রলীগ নেতা হাসিবুল বাশার হত্যার প্রধান আসামিসহ তিনজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তাদেরকে সোমবার দুপুরে আদালতে প্রেরণ করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দির আবেদন করা হয়। বিকেল ৪টার দিকে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নবনীতা গুহ’র আদালতে আসামিরা হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা সরাসরি স্বীকার করে স্বীকারোক্তি মূলক ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করে। জবানবন্দি অনুযায়ী পরবর্তী তদন্ত কার্যক্রম অব্যাহত আছে বলেও জানান জেলা পুলিশের এ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

জানা যায়, গ্রেফতারকৃত হাসান (৩১) বেগমগঞ্জ উপজেলার ২নং গোপালপুর ইউনিয়নের মহবুল্লাপুর গ্রামের মৃত আবু মিয়ার ছেলে, জয় (২১) একই গ্রামের মিন্টু মিয়ার ছেলে ও রুবেল (৪০) তিতা হাজারা গ্রামের মৃত আবু তাহেরের ছেলে। এসময় তাদের কাছ থেকে একটি আগ্নেয়াস্ত্র ও হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত লোহার রড, ধারালো কিরিছ জব্দ করা হয়েছে।

এসপি আরো জানায়, মো. হাসিবুল বাশার হত্যাকাণ্ডের ঘটনায়, বৃহস্পতিবার রাতে হাসিবুলের চাচা সিরাজুল ইসলাম বাদী হয়ে হাসান বাহিনীর প্রধান হাসানকে প্রধান আসামি করে ১১ জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাতনামা আরও ১০-১৫ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ ওই রাতেই অভিযান চালিয়ে মামলার ১০ নম্বর আসামি রকি (২৬) ও ১১ নম্বর আসামি বাহার উদ্দিন (২২) গ্রেফতার করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এ মামলার এখন পর্যন্ত দুই দফায় মোট ৫ আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে।

উল্লেখ্য, পূর্ব শক্রতার জের ধরে বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার ২ নম্বর গোপালপুর ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের কোটরা মহব্বতপুর গ্রামের সুবাহান মার্কেট এলাকায় বেগমগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য মো. হাসিবুল বাশারকে (২৫) পূর্বপরিকল্পিতভাবে কুপিয়ে ও জবাই করে হত্যা করে হাসান, মাসুম ও তাদের অনুসারীরা। এ সময় তাদের ছুরিকাঘাতে ছাত্রলীগ নেতা হাসিবুল বাশারের শরীর ক্ষতবিক্ষত হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বেগমগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাহাত চৌধুরী বলেন, ‘পূর্ব শক্রতার জের ধরে উপজেলার ২ নম্বর গোপালপুর ইউনিয়নের কোটরা মহব্বতপুর গ্রামের বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশকারী হাসান, মাদক ব্যবসায়ী মাসুম ও তাদের অস্ত্রধারী সাঙ্গপাঙ্গরা হাসিবুলের ওপর হামলা চালায়।’

শেয়ার করুনঃ





Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *