Main Menu

কাদের মির্জার রাজনৈতিকভাবে মৃত্যু হয়েছে -খিজির হায়াত খান

নোয়াখালী প্রতিনিধি :
বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার রাজনৈতিক ভাবে মৃত্যু আজকে হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান। তিনি বলেছেন, আবদুল কাদের মির্জা আজকে থেকে কোম্পানীগঞ্জের
রাজনীতিতে আর জীবিত নেই।

বুধবার (২০ অক্টোবর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলার বাংলা বাজারে সদ্য কারামুক্ত উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম শাহীন চৌধুরীর সংবর্ধনা সভায় বক্তৃতাকালে তিনি এসব কথা বলেন।

খিজির হায়াত বলেন, আমরা কোম্পানীগঞ্জ বাসী আমাদের জননেতা ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে আমরা আছি। ইনশাআল্লাহ আগামী নির্বাচনে আমরা আওয়ামীলীগ যাদেরকে নমিনেশন দিবো ওবায়দুল কাদের, সেন্টাল আওয়ামীলীগ, শেখ হাসিনা তাদেরকে দিবে।

আজকের পরে ও যদি কাদের মির্জার শিক্ষা না হয়, তাকে কিভাবে শিক্ষা দিতে হয়, সে কথা আমরা জানি।
মুছাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মাহফুজুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসানের সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন, সদ্য কারামুক্ত সংবর্ধিত মুছাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ
সম্পাদক নজরুল ইসলাম চৌধুরী শাহীন।

এ ছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আরজুমান পারভীন রুনু, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা ওলামালীগ নেতা ও রংমালা দারুস সুন্নাহ সিনিয়র মডেল মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল আবদুল্ল্যাহ আল মামুন, সেতুমন্ত্রীর ভাগনে ও রামপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সিরাজিস সালেকীন রিমন, মুছাপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুম খান মাখন প্রমূখ।

এ সময় কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মিরা কারামুক্ত চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম শাহীন চৌধুরীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানায়।

উল্লেখ্য,বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার প্রতিপক্ষ বাদল অনুসারী শাহীন চেয়ারম্যানকে গত (৮ সেপ্টেম্বর) গভীর রাতে উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে জেলা গোয়োন্দা পুলিশ (ডিবি) । এরপর ৪১দিন কারাভোগের পর তিনি
নোয়াখালী জেলা কারাগার থেকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জামিনে মুক্তি পান।

শেয়ার করুনঃ





Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *