Main Menu

নির্মিত হচ্ছে মুহুরী সেতু : সড়ক যোগাযোগে দুরত্ব কমবে বৃহত্তর নোয়াখালীবাসীর

সোনাগাজী :
চট্টগ্রাম জেলার সাথে নোয়াখালী ও লক্ষীপুর এবং ফেনী জেলার সোনাগাজী উপজেলার সড়ক যোগাযোগের সুবিধার্থে ফেনী
নদীতে মুহুরী সেতু নির্মাণ করছে সড়ক ও জনপদ বিভাগ। এতে করে সড়ক পথে ২ ঘন্টা কম সময়ের মধ্যে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে
আসতে পারবেন বৃহত্তর নোয়াখালীর বাসিন্দারা।

সেতুটি নির্মাণের মধ্য দিয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বিকল্প হিসেবেও ব্যবহৃত হবে সোনাপুর (নোয়াখালী)-সোনাগাজী (ফেনী)-
জোরারগঞ্জ (চট্টগ্রাম) সড়কটি। এছাড়া সোনাগাজী অর্থনৈতিক অঞ্চলে যাতায়াতের ক্ষেত্রেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে সেতুটি।

সওজ ফেনী জেলা সূত্রে জানা গেছে, মিরসরাই উপজেলার জোরারগঞ্জ-মুহুরী প্রজেক্ট সড়ক ও ফেনী জেলার সোনাগাজী সড়কের সাথে সংযোগ করে ফেনী নদীর উপর মুহুরী সেতুটি নির্মাণের উদ্যোগ নেয় সড়ক ও জনপদ বিভাগ। ৫৪ কোটি টাকা ব্যয়ে সেতুটির নির্মাণ কাজ করছে হাসান টেকনো বিল্ডার্স নামে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

সেতুটির দৈর্ঘ্য ৩৯১ মিটার, প্রস্থ ১০.২৫ মিটার, ৯টি স্প্যানে ৮টি পিলার, ২টি এ্যাপার্টমেন্ট হবে। মোট ফাইলিং হবে ১২৮টি। প্রতিটি ফাইলিং ৩৮ মিটার থেকে ৪৮ মিটার পর্যন্ত গভীর করা হয়েছে। ফাইলিং বাকী আছে মোট ১০টি। প্রতি স্প্যানে ৫টি করে মোট ৪৫টি গার্ডার বসানো হবে। সেতুর কাজ শুরু হয় চলতি বছরের জানুয়ারিতে। ৫টি পিলারের বেজ ঢালাই হয়েছে। ইতমধ্যে ২টি গার্ডার তৈরী করা হয়েছে। সেতুর জন্য ইতমধ্যে দুই পাশে ৪’শ মিটার অ্যাপ্রোচ সড়ক নির্মাণ করা হয়েছে। নির্মাণ সময় ধরা হয়েছে ১৮ মাস।

সড়ক ও জনপদ বিভাগ (সওজ) ফেনী জেলার উপ-সহকারি প্রকৌশলী এবং মুহুরী সেতুর প্রকল্প পরিচালক মাজহারুল হক বাংলারদর্পণকে বলেন, মুহুরী সেতুটি নোয়াখালী জেলার সোনাপুর সড়ক ও ফেনী জেলার সোনাগাজী সড়ক এর সাথে চট্টগ্রাম জেলার মিরসরাইয়ের জোরারগঞ্জ সড়কের সংযুক্ত ঘটাবে।

এতে করে বৃহত্তর নোয়াখালীবাসী প্রায় ২ ঘন্টা কম সময়ের মধ্যে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যাতায়াত করতে পারবেন। সেতুটি নির্মাণ করা হলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরের সোনাগাজী অর্থনৈতিক অঞ্চলে যাতায়াত সুবিধা বাড়বে। অর্থনৈতিক অঞ্চলে যোগাযোগের ক্ষেত্রে সেতুটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলেও জানান তিনি। মুহুরী সেতুর ফাইলিংয়ের কাজ ৯০% আর সেতুর সার্বিক অগ্রগতি ৪২%। আগামী বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে সেতুটি দিয়ে গাড়ী চলাচল করবে বলে আশা করা যায়।

সোনাগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন মাহমুদ বাংলারদর্পণকে বলেন, বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরের কারনে সড়ক পথে যোগাযোগ ও অর্থনৈতিক বিনিয়োগের কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে সোনাগাজী- মিরসরাই উপজেলা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। নির্মাণাধীন মুহুরী সেতু ব্যবহারের মাধ্যমে নোয়াখালী, লক্ষীপুর জেলা ও ফেনী জেলার সোনাগাজী উপজেলার বাসিন্দারা খুব দ্রুত সময়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যেতে পারবেন। এতে করে এই অঞ্চলের বাসিন্দাদের অর্থনৈতিক ও দৈনন্দিন জীবনের ব্যাপক পরিবর্তন আসবে।

শেয়ার করুনঃ





Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *