Main Menu

চৌমুহনীতে মন্দিরে হামলা, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৪

নোয়াখালী প্রতিনিধি :
নোয়াখালীর চৌমুহনীতে পূজামণ্ডপ ও মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ আরো ৪জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলো, সেনবাগ উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও জামায়াত নেতা হারুন অর রশীদ, বেগমগঞ্জের কালিকাপুর গ্রামের মৃত হাজী মফিজ উল্যার ছেলে মো.আনোয়ারুল ইসলাম (২৯), আলীপুর গ্রামের মৃত আবুল খায়েরের ছেলে মো.আবু তালেব (৪৭), হাজীপুর গ্রামের মৃত সৈয়দ আহম্মদের ছেলে মো. ফরহাদ(২৭)।

রোববার (২৪ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে সেনবাগ উপজেলার সেবারহাট থেকে ওই ইউপি চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করে সেনবাগ থানার পুলিশ। বেগমগঞ্জ থেকে গ্রেফতারকৃত ৩ আসামিকে একই দিন বিকেলে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

নোয়াখালী পুলিশ সুপার (এসপি) মো.শহীদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি আরো জানান, বেগমগঞ্জ থানা এলাকায় পূজা মন্ডপে হামলার ঘটনায় ভিডিও ফুটেজ দেখে রোববার বেগমগঞ্জ উপজেলা থেকে আরো ৩ আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে একই দিন বিকেলে তিন আসামিকে গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

অপরদিকে, সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী জানান, চৌমুহনীতে পূজামণ্ডপ ও মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুর এবং দুই ব্যক্তি নিহত হওয়ার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে জামায়াত নেতা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে রোববার রাতে উপজেলার সেবারহাট থেকে গ্রেফতার করা হয়।

ওসি মো.ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী আরো জানান, সোমবার সকালে পূজামণ্ডপ ও মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুর এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের দুই ব্যক্তি নিহত হওয়ার ঘটনায় মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে অভিযুক্ত আসামিকে নোয়াখালী চীফ জুডিজিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে।

শেয়ার করুনঃ





Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *