Main Menu

দক্ষিণ সুনামগঞ্জে গরীবের বরাদ্দকৃত ঘর ধনীর ভিটায় | বাংলারদর্পন

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :

সারাদেশে দুর্নীতি বন্দ হলেও দক্ষিণ সুনামগঞ্জে এখনও দূর্নীতি বন্ধ হয়নি। দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পাথারিয়া ইউনিয়নের পল্লীতে এক অসহায় পরিবারের সরকারী বরাদ্দকৃত ঘর গরীবের বদলে  ধনীর ভিঠে উঠেছে। এনিয়ে এলাকায় সমালোচনার ঝড় বইছে।

 

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পাথারিয়া ইউনিয়নের ওয়ার্ড সদস্যা মাহবুবা আক্তার এক অসহায় হতদরিদ্র পরিবারের  সরকারী বরাদ্দকৃত ঘর বড় অংকের টাকার বিনিময়ে একই গ্রামের তার আপন বাসুরের ছেলে  সুহেল মিয়ার কাছে বিক্রি করেন অসহায় পরিবারের ঘরটি। বাংলাদেশ সরকারের বিধি অনুযায়ী গরিবের প্রাপ্য ঘর গরীব পাওয়ার কথা থাকলেও তিনি নিজ আত্মীয়র  কাছে মোটা অংকের টাকায় বিক্রি করে দিয়েছেন, । ফলে হতাশ হয়ে পরেছেন অসহায় পরিবারের লোকজন। ইউপি সদস্যা মাহবুবা আক্তারের এই দুর্নীতির    জন্য দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরবারে অভিযোগ দিয়েছেন মানবাধিকার কর্মী গাজীনগ গ্রামের বাসিন্ধা  আবুল ফয়েজ। অভিযোগ সুত্রে জানা যায়,।

 

ইউপি সদস্যা মাহবুবা আক্তার নিজ আত্মীয় কাছে বড় অংকের টাকার বিনিময় অসহায় পরিবারের ঘরটি আপন বাসুরের ছেলে কোটি টাকার মালিক সুহেল মিয়ার কাছে বিক্রি করিয়াছেন।

 

এতে অসহায় পরিবারের লোকজন হতাশ হয়ে পরেছেন।

গ্রাম বাসীর পক্ষে উক্ত দুর্নীতির অভিযোগ টি সুক্ষভাবে তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের প্রতি অহব্বান জানান মো. আবুল ফয়েজ।

 

ঘর বিক্রির দূর্নীতির কথা অস্বীকার করে অভিযুক্ত ইউপি সদস্যা মাহবুবা আক্তার বলেন,আমি ঘর বিক্রি করিনি,।আমি চেয়ারম্যান সাহেবের নির্দেশে সুহেলকে ঘরটি দিয়েছি। সুহেলের ভাই একজন প্রতিবন্ধী।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *