Main Menu

পুলিশের ওপর হামলাকারীরা  অনুপ্রবেশকারী : মির্জা ফখরুল

 

নিজস্ব প্রতিবেদক :

৩১ জানুয়ারি ২০১৮।

হাইকোর্টের সামনে গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে যে হামলা হয়েছে, তা অনুপ্রবেশকারীরা করেছে বলে দাবি করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এই হামলাকারীদের চিনতে পারছেন না বলেও জানিয়েছেন মির্জা ফখরুল।

আজ বুধবার সকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল এ দাবি করেন। ‘বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর রায়সহ বিপুলসংখ্যক বিএনপি নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার, পুলিশি হয়রানির প্রতিবাদে’ এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া গতকাল বকশীবাজারে স্থাপিত বিশেষ আদালতে হাজিরা দিয়ে ফিরছিলেন। দলের চেয়ারপারসনের আদালতে হাজিরার দিন প্রতিবারের মতো কালও নেতা-কর্মীরা হাইকোর্ট মাজারের গেটে জড়ো হন।

পুলিশের দাবি, খালেদা জিয়া ফেরার সময় মিছিল থেকে পুলিশের দিকে ইটপাটকেল ছোড়া হয়। হাইকোর্ট এলাকায় পুলিশের প্রিজন ভ্যান ভেঙে দুই কর্মীকে ছিনিয়ে নিয়ে যান বিএনপির নেতা-কর্মীরা। এ সময় তাঁদের সঙ্গে সংঘর্ষে পুলিশের একজন অতিরিক্ত উপকমিশনারসহ (এডিসি) অন্তত চার পুলিশ সদস্য আহত হন। পুলিশের দুটি রাইফেলও এ সময় ভাঙচুর করা হয়।

মির্জা ফখরুল গতকালের ওই হামলা নিয়ে বলেন, ‘গতকাল মঙ্গলবার হাইকোর্টের সামনে যে হামলা হয়েছে, আমরা নিজেরাই তাদের ‘এক্সাক্টলি’ চিনতে পারছি না। সত্যিকার অর্থে আমরা আশঙ্কা করছি, অনুপ্রবেশকারীরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে বলে আমাদের বিশ্বাস।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আমরা শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবাদ জানাচ্ছি, শান্তিপূর্ণভাবে রাজনীতি করার চেষ্টা করছি। সরকার উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এটাকে নস্যাৎ করার চেষ্টা করছে।’

গতকাল রাত সোয়া ১০টায় গুলশান থেকে গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) আটক করে বলে বিএনপি অভিযোগ করে।

গয়েশ্বর রায়কে গ্রেপ্তারের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, এটা হঠাৎ করে একটা অশনিসংকেত। আরও উদ্বেগজনক বিষয় হলো, দীর্ঘ রাত ধরে গয়েশ্বর রায়কে গ্রেপ্তারের বিষয়টি স্বীকারই করা হয়নি।

মির্জা ফখরুল বলেন, যখন দেশের মানুষ একটি শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের জন্য অপেক্ষা করছে, তখনই সরকারপক্ষ থেকে এসব কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এর মূল উদ্দেশ্য হলো বিরোধ দলকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখা। বিএনপিকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখা।

মির্জা ফখরুল বলেন, গত রাতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির জ্যেষ্ঠ সদস্য জমিরউদ্দিন সরকার, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান এবং নগর বিএনপি নেতা হাবিবুন্নবী খান সোহেলের বাড়িতে পুলিশ অভিযান চালায়। তিনি এসব ঘটনার নিন্দা জানান।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী, গয়েশ্বর রায়ের মেয়ে অপর্ণা রায়, পুত্রবধূ নিপুণ রায় চৌধুরী, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *