Main Menu

চট্টগ্রামের শীর্ষ সন্ত্রাসী মহিম বন্দুকযুদ্ধে নিহত : অস্ত্র  উদ্ধার

 

 

চট্টগ্রাম ব্যুরো :

১। র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদ্ঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃংখলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। র‌্যাবের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, ডাকাত, খুনি, বিপুল পরিমান অবৈধ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার, মাদক উদ্ধার, ছিনতাইকারী, অপহরণকারী ও প্রতারকদের গ্রেফতার করে সাধারণ জনগনের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম এ বৎসর ০১ জানুয়ারি ২০১৭ হতে অদ্য ৩০ নভেম্বর ২০১৭ ইং তারিখ পর্যন্ত সর্বমোট ২৮৮ টি বিভিন্ন ধরনের অস্ত্রসহ মোট ৪৪টি ম্যাগাজিন এবং ৩,৪৪৫ রাউন্ড বিভিন্ন ধরনের গুলি/কার্তুজ উদ্ধারের পাশাপাশি ৬৭ লক্ষ ২৪ হাজার ৭৮১ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এর পাশাপাশি ২৩ হাজার ৬২৮ বোতল ফেন্সিডিল, ১,৪৩৮ বোতল বিদেশী মদ ও বিয়ার, ০৩ লক্ষ ৯১ হাজার ৯৫০ লিটার দেশীয় তৈরী মদ, ৬৫৬ কেজি ১৮০ গ্রাম গাঁজা, ৩৬০ গ্রাম হেরোইন এবং ৪০০ গ্রাম আফিম উদ্ধার করেছে।

 

৩। চট্টগ্রাম মহানগরীর বায়েজিদ এলাকায় ত্রাস শীর্ষ সন্ত্রাসী দুর্ধর্ষ মহিম @ মহিন এক আতঙ্কের নাম। খুন, হানাহানি, আধিপত্য বিস্তার, অপহরনসহ এমন কোন অপরাধ নেই সে করেনি। চাঁদাবাজির টাকা দিয়ে গত কয়েক বছরে সে নগরীর বায়েজিদ এলাকায় বিশাল সন্ত্রাসী বাহিনী গড়ে তুলেছে। তার বিরুদ্ধে নগরীর বিভিন্ন থানায় খুন, অস্ত্র আইন, হানাহানি, অপহরন ও জবর দখলসহ বিভিন্ন অপরাধে ১৮টির অধিক মামলা রয়েছে। র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম এই দুর্ধর্ষ শীর্ষ সন্ত্রাসী মহিম @ মহিন’কে গ্রেফতারের লক্ষ্যে ব্যাপক গোয়েন্দা নজরদারী অব্যাহত রাখে। এরই প্রেক্ষিতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, মহিম @ মহিন এর নেতৃত্বে একটি সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসীদল চট্টগ্রাম মহানগরীর পাঁচলাইশ থানাধীন রাজগঞ্জ এলাকায় নাশকতার উদ্দেশ্যে অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে অবস্থান করছে।  উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে অদ্য ৩০ নভেম্বর ২০১৭ ইং তারিখ ০৪০০ ঘটিকার সময় উর্ধ্বর্তন কর্তৃপক্ষকে অবগত করতঃ র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল বর্ণিত স্থানে পৌঁছালে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা র‌্যাবকে লক্ষ করে এলোপাথারিভাবে গুলি বর্ষণ শুরু করে। আত্মরক্ষা ও সরকারী জানমাল রক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি বর্ষণ করে। প্রায় ১০ মিনিট গোলাগুলির এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটে পালিয়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থলে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। তাৎক্ষণিকভাবে আহত ব্যক্তিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পরবর্তীতে ঘটনাস্থল তল্লাশী করে ০১টি একে-২২ এসএমজি, ০১টি ৭.৬৫ মিঃ মিঃ বিদেশী পিস্তল, ০১টি .৩৮ মিঃমিঃ বিদেশী রিভলবার, ০২টি ম্যাগাজিন (০১ ী একে-২২ এসএমজি এবং ০১ ী ৭.৬৫ মিঃ মিঃ বিদেশী পিস্তল), ২৭ রাউন্ড গুলি/কার্তুজ (২০ ী .২২ মিঃ মিঃ পিস্তল, ০৫ ী .৩৮ মিঃ মিঃ রিভলবার, ০২ ী ৭.৬৫ মিঃ মিঃ পিস্তল) এবং ২৬ রাউন্ড খালি খোসা (২০ ী ১২ বোর শার্টগান, ০৫ ী .২২ মিঃ মিঃ পিস্তল, ০১ ী .৩৮ মিঃ মিঃ রিভলবার) উদ্ধার করা হয়। এ সময় স্থানীয়দের মাধ্যমে জানা যায় যে, নিহত ব্যক্তি চট্টগ্রামের শীর্ষ সন্ত্রাসী বায়েজিদ এলাকার ত্রাস দুর্ধর্ষ মহিম @ মহিন, পিতা- মৃত আবুল কাশেম, হাজীপাড়া মোহাম্মদ মিয়া সওদাগর বাড়ি, থানা-বায়েজিদ, সিএমপি চট্টগ্রাম। তার বিরুদ্ধ খুন, ডাকাতি, অপহরণ, চাঁদাবাজি এবং অস্ত্র আইনের চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন থানায় ১৮টির অধিক মামলা রয়েছে। উল্লে¬খ্য যে, উক্ত ঘটনায় ০৩ জন র‌্যাব সদস্য আহত হলে তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়।

 

৪। নিহত ব্যক্তি, উদ্ধারকৃত অস্ত্র ও অন্যান্য আলামত পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের নিমিত্তে পরবর্তী আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *