Main Menu

কুমিল্লায় বেড়ে গেছে ভিক্ষুকদের উৎপাত : পথচারীদের দুর্ভোগ

 

এম,তানভীর আলম :

 

কুমিল্লার অন্যতম প্রধান  সড়ক ও শহরের প্রবেশমুখ শাসনগাছার নির্মানাধীন ফ্লাই ওভারের নিচের রাস্তাটি একটি ব্যস্ত সড়ক। ধির গতির নির্মাণকাজের কারনে শহরে যাতায়াতকারী পথচারীদের নাকাল অবস্থা । এই সড়কের পাশে তাকালেই দেখবেন রাস্তার পাশের সবচেয়ে নোংরা স্হানগুলোতে কয়েকজন পঙ্গু ভিক্ষুক নানা অংগ ভঙ্গিতে ও মুখে নানা উদ্ভট আওয়াজ করছে। সামনের একটি থালা তাতে খুচরা কিছু টাকা।

 

#এবার আসল কথায় আসি।

 

আপনি কি বোবা?  কথা বলতে পারেন?

:জ্বিনা, কি কইবেন

একজনের কাছে জানতে চাইলাম

 

কেন এমন ভাবে শব্দ করছেন। আর এই ময়লা পানিতে কেন পড়ে আছেন। আশেপাশে বহু শুকনো এবং জায়গা আছে সেখানে বসেও তো সাহায্য চাইতে পারেন?

 

:ওদিক দিয়া মাইনষে হাটে

আরো বহু জায়গা দেখিয়ে দিলাম

এবার হাসলেন,  বললেন :এইখানে এমনে থাকলে টেকা বেশী উঠে।

ও আচ্ছা! তার মানে মানুষের সহানুভূতি সাহায্য ও দৃষ্টি বেশী আকর্ষণ করতে এটা একটা কৌশল কি বলেন?

:হ এমনই

আপনি ইমোশনাল ব্লাকমেইল করছেন তাহলে?

:বুঝিনাই কি কন

বুঝতে হবে না। আপনারা কয়জন আছেন এমন?

:চাইর জন

বাকীরা কই?

: আছে, সন্ধায় একলগে হমু।

এই ময়লায় এভাবে থাকলে শরিরে অসুখ হবে না?

: সইয়া গেছে এখন

ঐ শুকনা পরিষ্কার জায়গায় গিয়ে বসেন।

: কইলাম না হেনে গেলে কামাই কম অইবো

এভাবে দেখতে তো খারাপ লাগে। আপনি একজন মানুষ আর মানুষ হয়ে আমার এটা দেখতে খুব খারাপ লাগছে?

: মায় লাগলেই তো টেকা দিবো মাইনষেএই রাস্তাঘাট দিয়ে অনেক দেশী বিদেশী লোক চলাচল করে তারা আপনাদের দেখছে এতে তো সরকার ও দেশের বদনাম হচ্ছে, আমরা ছোট হচ্ছি বিশ্বের কাছে!

: হইলে তাইলে আমি কি করতাম

হুম, কিছু করতে হবে না। বিয়ে করছেন?

:হ করছি: বৌ বাড়িত। পোলা আছে ঢাকা থাহে

দৈনিক কত টাকা ইনকাম করেন এভাবে?

:দুই আরাই হাজার কপাল ভাল হইলে নয়ইলে সতর আডার শ হয় কোন দিন একহাজার ও হয় আবার

তার মানে গড়ে মাসে পঞ্চাশ হাজার?

:খরচ আছে না আবার

কি খরচ?

:লোকেরে টাকা দিতে হয় আনা নেওয়ার। গাড়ী ভাড়া গরভাড়া হেতারে দৈনিক ৩০০/- টাকা আবার খানা খরচ।

৩০০ কারে দেন কর্মচারী কে?

: হ যেতে আনা নেওয়া করে, দুপুরে খানা লইয়া আইয়ে তারে।

ও আচ্ছা আচ্ছা। মুখে হুক্কু করেন যে, এটা কি বলেন?

:আল্লারে ডাকি।

কিন্তু হুক্কু হুক্কু ছাড়া তো আর কিছু বোঝা যায় না! ”

:আরে মানুষী তাকাইলেই হইলো

: ও দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্য, ভালো, চালাই যান তবে এটা ঠিক করছেন না। আপনি বেশি ইনকামের জন্য দেশের  ভাবমূর্তি নষ্ট করছেন। মানবিক কারনে কেউ কিছু না বলেও এটা কি ঠিক?  পাঠকের কি মনে হয়

 

স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন, সিটি কর্পোরেশন ও সংশ্লিষ্ট সকল কে এ ধরনের মানবতা বিবর্জিত দৃষ্টিকটু ও দেশ ও জাতির ভাবমূর্তি ক্ষুন্নকারীদের বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন। দরকার হলে তাদের পুনর্বাসন করা হোক। নয়তো সরকারী  উন্নতি আর  উন্নয়ন প্রশ্নবিদ্ধ করবে জাতি কে ।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *