Main Menu

সোনাগাজীতে পুলিশ ও আ’লীগের পাহারায় বিএনপির সমাবেশ

ফেনী:
সোনাগাজীতে পুলিশ ও আ’লীগের পাহারায় বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে উপজেলা বিএনপি। সমাবেশ চলাকালে পৌর শহরে ব্যবসায়ীদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করলেও শেষ পর্যন্ত শান্তিপূর্ন ছিল বিএনপির সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল।

জানাযায়, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সোমবার বিকাল ৩টায় সোনাগাজী জিরোপয়েন্টে বিক্ষোভ সমাবেশ আয়োজন করে উপজেলা বিএনপি। একই সময় জিরোপয়েন্টস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচি ঘোষনা দেয় উপজেলা আ’লীগ। উভয় পক্ষের সমাবেশে অনুমতি ছিলনা পুলিশের ।

বিকাল সাড়ে তিনটার সময় সোনাগাজী সরকারি কলেজ রোড থেকে বিএনপির একটি মিছিল জিরোপয়েন্টে আসার পথে বাধা দেয় মডেল থানা পুলিশ। বাধারমুখে জিরোপয়েন্টে সমাবেশ করে বিএনপি। জিরোপয়েন্টে অবস্থানরত আ’লীগ নেতাকর্মীরাও বিএনপির সমাবেশের চতুর্দিকে ঘেরাও করে। একদিকে পুলিশ অন্যদিকে আ’লীগ নেতাকর্মীদের বেষ্টনীর মাঝে ঘন্টাব্যাপি সমাবেশ করে উপজেলা বিএনপি।

সমাবেশে উপজেলা বিএনপির সভাপতি গিয়াস উদ্দিন’র সভাপতিত্বে ও পৌর বিএনপি নেতা নিজাম উদ্দিন’র সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন জেলা বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক ইয়াকুব নবী।

তিনি বলেন, বিএনপির ১০দফা দাবী বাস্তবায়ন, বেগম জিয়ার মুক্তি ও দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে দেশের সকল উপজেলায় আমাদের কর্মসূচি চলছে। সরকার ও সরকারীদল নগ্নভাবে বাধা দিচ্ছে। এভাবে বাধা দিলে একদফার আন্দোলন ঘোষনা করবে বিএনপি।

সমাবেশে আরো বক্তব্য দেন উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক জামাল উদ্দিন, সাবেক সাধারন সম্পাদক মঞ্জুর হোসেন বাবর, সাংগঠনিক সম্পাদক আমিন উদ্দিন দোলন, পৌর বিএনপির সভাপতি ভিপি দুলাল, উপজেলা যুবদলের যুগ্ন আহবায়ক সৈয়দ গিয়াস উদ্দিন, জেলা ছাত্রদলের সহ সভাপতি হাসান মাহমুদ , উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য সচিব সোহাগ নুর প্রমূখ।

অবস্থান কর্মসূচি পালনকালে উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম খোকন বলেন, বিএনপি সন্ত্রাসী দল। তাদের প্রতিটি কর্মসূচি ধ্বংসাত্মক । তাই তাদের হামলা থেকে ব্যবসায়ী ও সাধারণ জনগনকে বাঁচাতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে আ’লীগ ও সহযোগী সংগঠন। তাদের অযোক্তিক আন্দোলনে সাধারণ মানুষের এবং বিএনপির তৃনমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদেরও সমর্থন ছিলনা।

এসময় উপজেলা আ’লীগের সহ সভাপতি সাখাওয়াতুল হক বিটু, পৌর আ’লীগের সভাপতি সেলিম পাটোয়ারী, সাধারন সম্পাদক আবু তৈয়ব বাবুল, যুবলীগ সভাপতি ও আমিরাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুুল হিরন, উপজেলা আ’লীগের দপ্তর সম্পাদক সুলতান আহম্মদ, সাবেক প্রচার সম্পাদক সৈয়দ দীন মোহাম্মদ, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মাহমুদুর রহমান রাসেল , সাধারন সম্পাদক সাইমুম ভূঞাসহ বিপুল সংখ্যক আ’লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্র্মী উপস্থিত ছিলেন।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি খালেদ দাইয়ান বলেন, আ’লীগ ও বিএনপির পাল্টা-পাল্টি কর্মসূচি থাকায় সকাল থেকেই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় জিরোপয়েন্টসহ আশপাশের এলাকায় সতর্ক অবস্থানে ছিল পুলিশ।

শেয়ার করুনঃ





Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *