Main Menu

সালিশে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ,ইউপি সদস্যসহ আহত ৬

নোয়াখালী প্রতিনিধি
নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলায় গ্রাম্য সালিশী বৈঠকে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ইউপি সদস্যসহ ৬ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় স্থানীয় এলাকাবাসী ইমন নামে এক যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

আহত ইউপি সদস্যরে নাম আজাদ হোসেন আরজু (৩৬)। তিনি উপজেলার সুন্দলপুর ইউনিয়নের ৮নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য। তবে তাৎক্ষণিক আহত অন্যদের নাম জানা যায়নি।

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) সন্ধ্যার দিকে উপজেলার সুন্দলপুর ইউনিয়নের আবদুল্ল্যাহ মিয়ারহাটের প্রাইমারী স্কুল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

কবিরহাট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো.জয়নাল আবেদীন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি আরো জানান, গত ১৭ জানুয়ারি আবদুল্ল্যাহ মিয়ারহাট বাজারের মাসুম মেম্বারের দোকানে পার্শ্ববর্তী সদর উপজেলার অশ্বদিয়া ইউনিয়নের রাব্বী নামে এক যুবকের সাথে স্থানীয় আমিন মেম্বারের ছেলে কচিকে তুই বলা এবং ইভটিজিংকে কেন্দ্র করে ঝগড়া হয়। এরপর বুধবার সন্ধ্যায় ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আবদুল্ল্যাহ মিয়ারহাট ও অশ্বদিয়া ইউনিয়নের নেতৃস্থানীয় লোকজন বিষয়টি সমাধান করতে বৈঠকে বসে।ওই বৈঠকের এক পর্যায়ে সালিশের মধ্যে কথা কাটাকাটি লাগলে সালিশের বাহিরে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি বেধে যায়। এ সময় ইউপি সদস্য আরজু সংঘর্ষ থামাতে গেলে লোহার আঙ্গেল দিয়ে তাঁর পিঠে ঘাই মেরে দেয় এক যুবক।

পরিদর্শক (তদন্ত)মো.জয়নাল আবেদীন বলেন,এ ঘটনায় স্থানীয় এলাকাবাসী ইমন নামে এক যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। আহত ইউপি সদস্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুনঃ





Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *