Main Menu

কুমিল্লায় হত্যাসহ ত্রিশ মামলার আসামী রেজাউল অস্ত্রসহ গ্রেফতার

কুমিল্লা থেকে আনোয়ার:
কুমিল্লার আলোচিত হত্যা মামলা সাবেক কুমিল্লা জেলা ছাত্রলীগ নেতা দেলোয়ার হত্যাসহ ত্রিশ মামলার আসামী দুধর্ষ সন্ত্রাসী রেজাউল করিমকে কুমিল্লার বিবির বাজার সীমান্ত থেকে বিজিবি আটক করে কোতয়ালী থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে।

শনিবার (১৯ জুন) রাত সাড়ে ১টায় গোলাবাড়ি পোস্টের কাছে কুমিল্লা-১০ বিজিবি ব্যাটালিয়ন ওই শীর্ষ সন্ত্রাসীকে আটক করে।

কুমিল্লা ১০-বিজিবি ব্যাটালিয়নের অতিরিক্ত পরিচালক মোহাম্মাদ রেজাউর রহমান প্রেস বিজ্ঞাপ্তিতে জানিয়েছে, তার সাথে ৩২ বোরের চারটি গুলিসহ রিভালবার, ১৬ পিস ইয়াবা, নতুন ধরনের ভারতীয় ১ প্যাকেট “কৌটা মাদক”, ভারতীয় পরিচয়পত্র ৩টি, ভারতীয় ইউসিবি ব্যাংকের ২টি ডেবিট কার্ড, ভারতীয় বিভিন্ন প্রকার ৭টি কার্ড ও বাংলাদেশ, ভারত ও কাতারের মুদ্রা উদ্ধার করেছে বিজিবি।

কোতয়ালী থানার কেরানী নগরে (সাজু মেম্বারের বাড়ি সংলগ্ন) রাত ১টায় বিজিবি টহল দল ভারত থেকে বাংলাদেশের প্রবেশের সময় তাকে দেখে চ্যালেঞ্জ করে। এসময় ওই ব্যক্তি ভারতের অভ্যন্তরে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে বিজিবি তাকে ধাওয়া করে এবং ০১টি ব্যাগসহ আটক করে।

শুরুতে নিজের পরিচয় গোপন করলেও প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, সে সদর দক্ষিণ উপজেলার বল্লভপুর গ্র্রামের আব্দুল রাজ্জাকের ছেলে মো রেজাউল করিম (৩৪)। আরো জানা যায়, তালিকাভুক্ত কুমিল্লার শীর্ষ সন্ত্রাসী রেজাউল, সে ভারতে অবৈধভাবে অবস্থান করে বাংলাদেশে হত্যা, রাহাযানি ও ধর্ষণসহ বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত আছে। তার বিরুদ্ধে একাধিক হত্যা মামলাসহ বিভিন্ন থানায় প্রায় ৩০টি মামলা চলমান রয়েছে।

খবর নিয়ে জানা গেছে, সন্ত্রাসী রেজাউল করিমের বিরুদ্ধে কোতয়ালী ও সদর দক্ষিণ থানায় দুটি হত্যা মামলা, চাঁদাবাজি, মারামারি, মাদক ও ডাকাতিসহ অন্তত ৩০টি মামলা রয়েছে। সদর দক্ষিণ থানার এক প্রবাসীর স্ত্রীকে গণধর্ষণের মামলাও রয়েছে। সাবেক জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হত্যাকান্ড ছাড়াও ছাত্রলীগ নেতা রাসেল ও আপেল হত্যা কান্ডেরও মূল ঘাতক রেজাউল।

কোতয়ালী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কমল কৃষ্ণ ধর জানান, বিজিবি কোতয়ালী থানা পুলিশের কাছে রেজাউলকে হস্তান্তর করেছে। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদক আইনের আরো দুটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

আগামীকাল সকালে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হবে।
কুমিল্লার সদর দক্ষিণের শীর্ষ সন্ত্রাসী গ্রেফতার হওয়ায় কুমিল্লাবাসীর মধ্যে ব্যাপক স্বস্তির বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যাক্তি জানিয়েছেন, রেজাউল গ্রেফতারের খবরে আমরা খুশি কিন্তু সে আবার জেল থেকে ছাড়া পেলে ভবিষ্যতে আরো হত্যাকান্ড ঘটাবে।

শেয়ার করুনঃ





Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *