Main Menu

লক্ষীপুর সাইফিয়া দরবার শরীফে শুরু হচ্ছে ৩ দিনের সুন্নী ইজতেমা | বাংলারদর্পণ

মোঃ ইমাম উদ্দিন সুমন :
পরম করুণময় মহান রাব্বুল আলামিনের দয়া ও মেহেরবানীতে পীরে কামেল মুজতামিউস সুন্নি শাহ সূফি মূশির্দে হক লক্ষ্ণীপুরী আহবানে লক্ষীপুর সাইফিয়া দরবার শরীফে আগামি ২৮ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হতে যাচ্ছে ৩ দিনের সুন্নী এস্তেমা ২০২১।

মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনায় ৩০ জানুয়ারি শনিবার দুপুরে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে সুন্নী ইজতেমা ২০২১।

সারাদেশের হাজার হাজার মুসল্লি ও ভক্তদের আমিন আমিন ধ্বনিতে মুখরিত হবে সাইফিয়া দরবার শরীফ প্রাঙ্গণ।

ইতি মধ্যেই বিভিন্ন জেলা থেকে ধর্মপ্রাণ মুসল্লীগণ ইজতেমা প্রাঙ্গণে আসতে শুরু করেছে।

২৮ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার বাদ জোহর ধর্মীয় ভাব গাম্বীর্যের মধ্যদিয়ে দরবার শরীফের পীর ছাহেব ক্বেবলা মুজতামিউস সুন্নী আলহাজ্ব শাহসূফী মাওলানা মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম সিদ্দিকী আলকাদেরি আলচিশতী (মাঃজিঃআঃ) আনুষ্ঠানিক ভাবে সুন্নী ইজতেমার উদ্বোধন করবেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখবেন, পীরজাদা আলহাজ্ব মাওলানা শাহ মোহাম্মদ আতায়ে রাব্বী সিদ্দিকী। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পীর ছাহেব ক্বেবলা দেশবাসী ও মুসলিম উম্মাহর শান্তি এবং কল্যান কামনা করবেন বলে জানাযায়।

দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আগত অসংখ্য মুসল্লিদের ইজতেমা অংশগ্রহন করেন। প্রতিবছর দেশি-বিদেশী হাজার হাজার ধর্মপ্রান মুসল্লি ও রাসুল প্রেমী আশেকানে তরিকতের ভক্তবৃন্দ উক্ত ইজতেমায় অংশগ্রহন করেন। লক্ষীপুর জেলা শহর থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত মজুচৌধুরী হাট সড়কের পার্শ্বে চররমনী মোহন ইউনিয়নে চর আলীহাসান গ্রামে সাইফিয়া দরবার শরীফ অবস্থিত।

উপমহাদেশের প্রখ্যাত পীরে কামেল মুজতামিউস সুন্নী আলহাজ্ব হযরত শাহসূফী মাওলানা মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম সিদ্দিকী আলকাদেরী আলচিশতী (মাঃজিঃআঃ)র আহবানে প্রতিবছর এই দিনে ৩ দিনব্যাপী সুন্নী ইজতেমা অনু্ষ্ঠিত হয়ে আসছে।

মহান আল্লাহর নৈকট্য লাভের আশায় দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে রাসুল প্রেমি ভক্তরা ৩ দিনের ইজতেমায় ওয়াজ, জিকির শহ নানা এবাদত মশগুলের মধ্যেদিয়ে সময় ব্যায় করবেন। ৩০ জানুয়ারি শনিবার আখেরি মোনাজাতের মধ্যে দিয়ে ইজতেমা সমাপ্ত হবে।

ইজতেমায় ধর্মপ্রাণ মুসলমাদের জন্য দরবারের ব্যাক্তিগত ৩০০ শতেরও অধিক নিরাপত্তা কর্মিসহ প্রর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যাবস্থা গ্রহন করা হয়েছে, নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে, করোনা মোকাবেলায় শতভাগ স্বাস্ব্য সচেতনতা মানাসহ মাস্ক হ্যান্ডস্যানিটাইজারসহ করা হয়েছে সব ধরনের সুব্যবস্থা করা হয়েছে বলে জানান ইজতেমা আয়োজক কিমিটি। সেই সাথে বিনামূল্য ঔষধ, ডাক্তার ও চিকিৎসা সেবা প্রদান, বিশাল প্যান্ডেলে থাকা, লঙ্গর খানা, রয়েছে প্রর্যাপ্ত টয়লেটের ব্যাবস্থা, সহ সব ধরনের সুযোগ সুবিদা প্রদান করা হবে। এতি মধ্যেই সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

শেয়ার করুনঃ





Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *