Main Menu

বোয়ালখালীতে বন্যহাতির আক্রমণে তিনজন নিহত

নিউজ ডেস্কঃ

চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলায় লোকালয়ে চলে আসা বন্যহাতির পৃথক আক্রমণে তিনজন নিহত হয়েছেন। এ সময় লোকালয়ে আসা বন্যহাতির দল আবাদি জমিতে তাণ্ডব চালায়।

আজ রোববার সকালে উপজেলার কধুরখীল ইউনিয়নের চৌধুরীহাট, সৈয়দনগর ও জ্যৈষ্ঠপুরা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তিরা হলেন কধুরখীল সৈয়দপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মো. জাকের (৬৫), পাশের এলাকার মো. আবু তাহের মিস্ত্রি (৬৫) ও আবদুল মাবুদ (৬০)।

পূর্ব সৈয়দনগরে হাতির আক্রমণে নিহত খরণদ্বীপ বিজান বিবি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক জাকের হোছাইনের (৬৫) মেয়ে ফাহমিনা আফরোজ তারিন জানান, হাতির পাল সকালে চাঁন্দারহাট জামে মসজিদের পাশে তার বাবাকে আক্রমণ করে। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্রেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) নেওয়া হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসকদের ভাষ্য অনুসারে, হাসপাতালে পৌঁছার আগেই তার মৃত্য ঘটে।

কধুরখীল ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আবদুল করিম জানান, সকালে ৪/৫টি হাতি কধুরখীল তৈয়্যবিয়া তাহেরীয়া সুলতান মোস্তফা কমপ্লেক্সের পূর্বপাশে শরীফ পাড়া এলাকায় শস্যক্ষেতে কাজ করার সময় স্থানীয় আবদুল লতিফ মিস্ত্রির সন্তান আবু তাহের মিস্ত্রি হাতি আক্রমণের শিকার হন। ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়েছে। তিনি তিন ছেলে ও এক মেয়ে সন্তানের জনক। নিহতের বাড়ি কধুরখীল শরীফপাড়া আলী আহমদ মিস্ত্রির বাড়ি।

বোয়ালখালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন ফারুকী জানান, চৌধুরীহাট ও চান্দেরহাট এলাকায় হাতির আক্রমণে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। বর্তমানে লোকালয়ে চলে আসা হাতির পালটি বিভক্ত হয়ে কধুরখীল, পোপাদিয়া ও শ্রীপুর-খরনদ্বীপ এলাকায় অবস্থান করছে। এ অবস্থায় বাসিন্দাদের সতর্কতার সঙ্গে চলাচল করার অনুরোধ করা হয়েছে।

গত কয়েক দিন আগে হাতির পালটি লোহাগাড়া উপজেলার সদর ইউনিয়ন ও কলাউজান ইউনিয়নের লোকালয়ে চলে এলে স্থানীয় লোকজন ও প্রশাসনের সমন্বয়ে হাতির পালটিকে বনে ফেরানো হয়েছিল।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *