Main Menu

নির্বাচন নিয়ে ডাল মে কুচ কালা হ্যায়

কুলেন্দু শেখর দাস :

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার সর্বস্তরের মানুষের প্রিয় ব্যক্তিত্ব,যাকে যেকোন মানুষজন সরাসরি তাদের সুখ দুঃখের কথা জানাতে বায়া ধরতে হয় না। র্নিলোভ ও বড়মনের মানুষ হাজী আবুল কালাম। তিনি সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের বিপ্লবী সভাপতি ও দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও আগামী ১০ মার্চের নির্বাচনে স্বাধীনতার প্রতীক,মুক্তিযুদ্ধের প্রতীক, সাধারন মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি অর্জনের প্রতীক,জাতির পিতা বঙ্গবন্ধ শেখ মুজিবুর রহমান ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার প্রতীক, দেশের সতের কোটি মানুষের প্রতীক, সেই নৌকার মাঝি হাজী আবুল কালাম। তাই দক্ষিণ সুনামগঞ্জের সর্বস্তরের মানুষের কাছে আকুতি আপনার আমার উন্নয়নের ধারাকে আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে এবং দেশরত্ন শেখ হাসিনার শ্লোগান গ্রামকে শহরে পরিণত করতে সারাদিন হাজী কালামের নৌকার প্রতীকে ভোট দিন। আমার বিশ্বাস দক্ষিণ সুনামগঞ্জের সম্মানিত নারী পূরুষ ভোটারগন নৌকার প্রতীকে ভোট দিয়ে তার বিজয়কে সুনিশ্চিত করবেন।

 

গুটি কয়েক লোকজন আছেন যারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, ও মাননীয় প্রধানমন্ত্র্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা আর্দশের রাজনীতির কথা বলে হাটবাজারে ঘুরে বেড়ান এবং চাপাবাজি করেন ওরাই রাতের আধারে নৌকার প্রার্থীকে পরাজিত করতে আনারসের প্রার্থীর পক্ষে ভোট চাইছেন। এ নিয়ে বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় প্রকাশ্যে একজন আওয়ামীলীগের নেতাে এবং জনপ্রতিনিধির বিরুদ্ধে সংবাদ ও প্রকাশিত হয়েছে।

 

এখন প্রশ্ন হলো আদর্শিক রাজনীতি এখন কোন জায়গায় গিয়ে দাড়িয়েছেঁ এমন প্রশ্ন সাধারন মানুষজন ও ভোটারদের মধ্যে। যারা প্রকৃতপক্ষে বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার আদর্শের রাজনীতি করেন তারা কোনদিন নেত্রীর সাথে, দলের সাথে বেইমানী করতে পারেন না। যারা সকল রাজনৈতিক আদর্শ ও নীতি নৈতিকতা বিসর্জন দিয়ে নেত্রীর মনোনীত প্রার্থীর বিরোধীতা করেন নৌকাকে বুড়িগঙ্গা কিংবা সুরমা নদীতে ডুবানোর ষড়যন্ত্র ও পায়তারাঁ করছেন এই সমম্ত গুটি কয়েক যারা আওয়ামীলীগ নেতা বলে নিজেদের দাবী করেন তাদের আদর্শিক রাজনীতি নিয়ে ও সাধারন মানুষের পাশাপাশি আমার মনে ও ব্যাপক প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

 

আসলেই ওরা কারা, ওরা কি আসলেই বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার আদর্শের রাজনীতি করেন নাকি ওরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধবংস করতে ষড়যন্ত্র করছেন এই বিষয়গুলো আমার মনে হয় খতিয়ে দেখার সময় এসেছে।

 

মনে রাখতে হবে আদর্শ হচ্ছে আমি যে সংগঠনকে ভালবাসব হৃদয় থেকে ভালবাসব এবং শত প্রতিকূলতার মাঝেও াইম আমার আদর্শিক জায়গা থেকে বিচ্যুত হবো না এটা হচ্ছে রাজনীতির মূলমন্ত্র। আমার একজনের সাথে মনোমালিণ্য থাকতেই পারে সেজন্য যদি প্রতিহিংস্রার কারণে আদর্শ ও নীতি নৈতিকতা বিসর্জন দিয়ে তার ক্ষতির চিন্তা করা হয় সেটা কোন আদর্শিক রাজনৈতিক নেতার কর্মকান্ড হতে পারে না। সেটা এক নম্বরে হবে দলের জন্য বড় শক্রু এবং দেশের শক্রু।

এলাকায় ঘুরে গ্রামের সহজ সরল সাধারন মানুষজনের সাথে কথা বলে আমার ব্যক্তিগত অনুসন্ধানে বেড়িয়ে এসেছে ডাল মে কুচ কালা হ্যায়। ষড়যন্ত্রকারীরা নৌকাকে ডুবাতে গুটি কয়েক আওয়ামীলীগার বলে দাবীদার গভীর ষড়যন্ত্র লিপ্ত রয়েছেন। তাদের ষড়যন্ত্র সাধারন জনগন আগামী ১০ তারিখে ভোট বিপ্লবের মাধ্যমে প্রমাণ করবেন শেখ হাসিনার আদর্শ ও নৌকার প্রতি ভালবাসা তাদের কত। সেই মহেন্দ্রক্ষনের অপেক্ষায় রইলাম।

 

কুলেন্দু শেখর দাস, গণমাধ্যমকর্মী।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *