Main Menu

২০ দলে থেকেও ধানের শীষ প্রতীক নিতে অস্বীকৃতি জানালো জামায়াতে ইসলামী

নিউজ ডেস্ক:রাজনৈতিক দল হিসেবে আদালত কর্তৃক নিবন্ধন অবৈধ ঘোষিত ও দলীয় প্রতীক দাঁড়িপাল্লা হারানোর পরও আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে প্রস্তুতি নিচ্ছে জামায়াতে ইসলামী। জানা গেছে, জামায়াতে ইসলামী জোটগতভাবে ২০ দলে থাকলেও দল থেকে প্রর্থীরা স্বতন্ত্র হয়ে লড়বেন। এমনকি ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন না করার সিদ্ধান্তের কথাও জানিয়েছেন জামায়াতের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের।

২৮ এপ্রিল এহসানুল মাহবুব জুবায়ের আগামী নির্বাচনে জামায়াতে ইসলামীর অংশগ্রহণ ও প্রার্থীতা বিষয়ে এক ঘরোয়া বৈঠকে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘আমরা ২০ দলে আছি। ২০ দলে থেকেই জোটগত নির্বাচন করবো ইনশাল্লাহ। আমাদের প্রার্থীরা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লড়বেন। বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করার কোনো সিদ্ধান্ত বা চিন্তা-ভাবনা এখনও জামায়াতের নেই। অর্থাৎ জামায়াত নির্বাচন করবে ২০ দলীয় জোটগতভাবে, আর জামায়াতের প্রার্থী হবেন স্বতন্ত্র।’

এদিকে নির্বাচনে জামায়াতের কৌশল কী হতে পারে, এ ব্যাপারে দলটির কেন্দ্রীয় শুরা সদস্য মাওলানা হাবিবুর রহমান গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে বলেছেন, বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে লড়ার কোনো চিন্তা জামায়াতের নেই।

অবশ্য রাজনীতি বিশ্লেষকরা বলছেন, যুদ্ধাপরাধের দায়ে অভিযুক্ত ‘নিবন্ধনহারা জামায়াত’নেতারা কৌশলে নির্বাচনের মাঠে নিজেদের উপস্থিতি ধরে রাখতে বিএনপির সঙ্গে আসন ভাগাভাগিতে গিয়ে বিএনপির-ই নির্বাচনী প্রতীক ‘ধানের শীষ’ও ব্যবহার করতে পারে। তবে স্থানীয় ও উপমহাদেশের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে বিএনপি বিষয়টিকে কীভাবে সমন্বয় করবে তার উপরও সেটি অনেকাংশে নির্ভর করছে।

উল্লেখ্য, জামায়াতে ইসলামীর নীতিনির্ধারকরা ৫০ থেকে ৭০টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার প্রস্তুতি নিয়ে সাংগঠনিক তৎপরতা শুরু করেছেন বলেও বিশেষ সূত্রে জানা গেছে। এমনকি রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গোপনে ইতোমধ্যে বেশক’টি নির্বাচনবিষয়ক সাংগঠনিক বৈঠকও করেছেন জামায়াতের সংশ্লিষ্ট নেতারা।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *