Main Menu

পীরগাছায় ৩য় শ্রেণির ছাত্রী ৭ মাসের অন্তঃসত্বা : পরিবার অবরুদ্ধ

জানে-আলম শেখ :

রংপুরের পীরগাছায় ৩য় শ্রেণির এক অসহায় স্কুল ছাত্রী ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনাটি নিয়ে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল ওই ছাত্রীর পরিবারকে অবরুদ্ধ করে রাখায় পরিবারটি আইনের আশ্রয় নিতে পারছে না। ফলে পরিবারটি আইনের আশ্রয় নিতে না পারায় মানবেতর জীবন যাপন করছে।

 

জানা গেছে, উপজেলার কান্দি ইউনিয়নের হরিদেব চাপড়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক এর বখাটে ছেলে মাজেদুল ইসলাম (২০) প্রায় ৭ মাস পূর্বে একই গ্রামের দিনমজুর আজিজুল হকের মেয়ে স্থানীয় বালারদিঘী সরকারি প্রাথমিক বিধ্যালয়ের ৩য় শ্রেণির ছাত্রী বিউটি বেগম (ছদ্ম নাম) কে জোরপূর্বক ধর্ষন করে। এরপর ধর্ষক মাজেদুল ইসলাম ধর্ষনের কথা কাউকে না বলার জন্য ভয় দেখিয়ে ওই স্কুল ছাত্রীর ডান হাতের কজি¦র উপরে ধারালো ছুরি দিয়ে ৩ ইঞ্চি পরিমান কেটে দেয়। সম্প্রতি ওই স্কুল ছাত্রীর শারীরিক অবস্থার পরিবর্তন হলে বিষয়টি ফাঁস হয়ে পড়ে। পরে বিউটি বেগম ঘটনাটি তার বাবা-মা সহ স্কুল শিক্ষকদের জানান। গত এক মাস পূর্বে  স্থানীয় ভাবে বিষয়টি শালিসী বৈঠকে ধর্ষক মাজেদুল ইসলাম ধর্ষনের কথা স্বীকার করে ও তার পরিবার মেয়েটিকে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দেন। কিন্তু গত এক মাসেও বিউটি বেগমকে বিয়ে না করে ধর্ষক মাজেদুলের পরিবার তালবাহানা করে প্রভাবশালী একটি মহলের হস্তক্ষেপে পরিবারটিকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে। ফলে অসহায় ওই পরিবারটি অবরুদ্ধ থাকায় আইনের আশ্রয় নিতে পারছে না। এমনকি প্রভাবশালীদের ভয়ে ওই পরিবারটি বাড়ি থেকে বের হতে না পারায় পরিবার-পরিজন নিয়ে খেয়ে না খেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। বর্তমানে বিষয়টি নিয়ে ওই এলাকায় ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

 

ওই গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য আজিজুল ইসলাম এর সাথে কথা হলে তিনি জানান, আমরা বিষয়টি জানার পর মেয়েটিকে নিয়ে ডাক্তারী পরীক্ষা করার পর ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বার বিষয় নিশ্চিত হওয়া গেছে।

 

সরেজমিনে গিয়ে ভিকটিমের সাথে কথা বললে সে কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, মাজেদুলেই আমার পেটের সন্তানের পিতা। আমি আমার গর্ভের সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের দাবি জানাই






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *