Main Menu

ডাক্তার সংকটে সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে সেবা কার্যক্রম মারাত্মক ব্যাহত 

ফেনী প্রতিনিধি :

চিকিৎসক-কর্মচারী ও প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি সংকটে সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এখন নিজেই রোগাক্রান্ত হয়ে পড়েছে। ফলে উপজেলার ৯ টি ইউনিয়ন ও একটি পৌর সভার বাসিন্দারা কাঙ্খিত চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সুত্র জানায়,সোনাগাজী উপজেলায়  চিকিৎসকের মোট একুশটি পদ থাকলেও বর্তমানে উপজেলায় চিকিৎসক কর্মরত রয়েছেন মাত্র ২ জন। অফিস সহকারীর ৫ টি পদের মধ্যে কর্মরত আছেন মাত্র ১ জন।  চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীদের পাঁচটি পদের মধ্যে আছে মাত্র একজন। সুইপারদের ৫টি পদের মধ্যে ৪ টি পদ দীর্ঘদিন শূন্য রয়েছে। টেকনিশিয়ান থাকলেও দীর্ঘদিন এক্স-রে মেশিনটি বিকল। গত প্রায় এক যুগেরও বেশী সময় জেনারেটরটি নষ্ট অবস্থায় পড়ে রয়েছে। এছাড়া আসবাবপত্র ও বিভিন্ন বিভাগে যন্ত্রপাতির সংকটও রয়েছে।

সুত্র জানায়, বর্তমানে হাসপাতালে যে দুইজন জন চিকিৎসক কর্মরত রয়েছেন- তাদের মধ্যে একজন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবারপরিকল্পনা কর্মকর্তা। তাকেও দাপ্তরিক কাজের পাশাপাশি রোগী দেখতে হয়। একজন মেডিকেল অফিসার দিয়ে চরম সংকটে চলছে উপজেলায় চিকিৎসা কার্যক্রম।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি কাগজে কলমে পঞ্চাশ শর্যার বলা হলেও ৩১ শয্যার জনবল দিয়েই চলছে। প্রতিদিন গড়ে ৭০/৮০ জন রোগী ভর্তি থাকে। বহির্বিভাগে গড়ে দুর দুরান্ত থেকে ৪০০-৪৫০ রোগী চিকিৎসা সেবা নিতে আসে। কিন্তু প্রয়োজনীয় ও বিভাগীয় চিকিৎসক না থাকায় অনেক রোগী সেবা না নিয়েই বাড়ী চলে যেতে হয়।

সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য . কর্মকর্তা নূরুল আলম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে  চিকিৎসক-কর্মচারী ওযন্ত্রপাতি সংকটের সত্যতা স্বীকার করে বলেন,চিকিৎসক সংকট এবং এক্স-রে মেশিনসহ বিভিন্ন বিভাগেরযন্ত্রপাতি নষ্ট থাকার বিষয় একাধিক বার চিঠি দিয়ে উর্ধতনকর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। তিনি আরো জানান ২১ জন ডাক্তারের মধ্যে মাত্র ২ জন ডাক্তার দিয়ে চরম সংকটের মধ্যেও রুগীদের সেবা দিতে আমরা সাধ্যমতো চেষ্টা করে যাচ্ছি।

তিনি আরো জানান সম্প্রতি ৩ জন চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়া হলেও তারা হাসপাতালে যোগদান করেননি।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *