Main Menu

ফেনীতে ভ্রাম্যমান আদালতের উপর হামলা : কাউন্সিলর মনিরের বিরুদ্ধে মামলা

 

নিজস্ব প্রতিবেদক >

ফেনীতে ভ্রাম্যমান আদালতের উপর হামলার ঘটনায় ফেনী পৌরসভার ১৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনির আহম্মেদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল রানা। সোমবার বিকেলে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন এর ফেনীর ব্যবস্থাপক মো: আবু সাঈদ সরকার। সরকারী কাজে বাধা দেওয়ায় আটক ৩ জনকে ৩ মাস করে কারাদন্ড প্রদান করেন সোহেল রানা।

ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার সোহেল রানা জানান, ফেনীর পশ্চিম রামপুরে প্রায় ৭ কি.মি. লাইনে ১৪৩টি রাইজারের মাধ্যমে অবৈধ সংযোগ প্রদান করেছে এলাকার স্থানীয় ১৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনির আহম্মেদ। প্রতিটি সংযোগ দিতে নেওয়া হয়েছে ত্রিশ থেকে চল্লিশ হাজার টাকা। ভ্রাম্যমান আদালত অভিযানে গেলে কাউন্সিলর মনির আহম্মেদের নেতৃত্বে এক দল দুর্বৃত্ত এই অভিযানকে বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা করে। এ সময় এই উচ্ছেদ কার্যক্রমকে বাধাগ্রস্ত করতে গ্যাস কোম্পানির গাড়ির ড্রাইভারের উপর হামলা করে এবং রাস্তায় অবস্থানে নেওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পাশের র্যাব ক্যাম্পের কিছু র্যাবের সাহায্যে রাস্তার লোকজনকে সরিয়ে দেন। কাউন্সিলর নিজে ইউনিক পরিবহনের একটি গাড়িতে ইট মারেন। পরিস্থিতি শান্ত করতে ব্যাটালিয়ান আনসারকে গুলি বর্ষনের নির্দেশ দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রট। চার রাউন্ড ফাকা গুলি বর্ষন করা হয়। আটক করা হয় তিনজন হামলাকারীকে।

পরিস্থিতি মোকাবেলায় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পরিদর্শক (অপারেশন) মো: সাজেদুলের নেতৃত্বে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে প্রেরণ করেন। এরপর আবার শুরু হয় উচ্ছেদ অভিযান। এসময় এক কিলোমিটার অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। ব্যাটালিয়ান আনসারের সদস্যরা কাউন্সিলর মনিরকে আটক করলেও সুযোগ বুঝে সে পালিয়ে যায়।

সোহেল রানা আরো জানান, সরকারী কাজে বাধা দেওয়ায় আটক ৩ জনকে ৩ মাস করে কারাদন্ড প্রদান করা হয়। এদিকে বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির ব্যবস্থাপকের মাধ্যমে কাউন্সিলর মনিরের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা করেন।

অভিযানের সময় বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন এর ফেনীর ব্যবস্থাপক মো: আবু সাঈদ সরকার ও ব্যাটালিয়ান আনসারের সদস্য উপস্থিত ছিলেন।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *