Main Menu

রুশ ক্ষেপণাস্ত্র বিশ্বের যেকোনো স্থানে আঘাত হানতে সক্ষম : পুতিন

 

অনলাইন ডেস্ক :

নতুন ক্ষেপণাস্ত্রের খবর দিলেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। রাশিয়ায় আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের আগে আজ বৃহস্পতিবার পার্লামেন্টের উভয় কক্ষে ভাষণ দেন পুতিন। সেখানেই তিনি নতুন ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির খবর নিশ্চিত করেছেন—যা বিশ্বের যেকোনো স্থানে আঘাত হানতে সক্ষম।

আসন্ন নির্বাচনের মধ্য দিয়ে চতুর্থবারের মতো প্রেসিডেন্ট হতে চাচ্ছেন পুতিন। এ জন্য নির্বাচনে নির্দলীয় প্রার্থী হিসেবে অংশ নেওয়ার কথা জানিয়েছেন তিনি। নির্বাচনের আগে বৃহস্পতিবার পার্লামেন্টে শেষ ভাষণ দেন তিনি। এ সময় পুতিন ভিডিও উপস্থাপনার মাধ্যমে নতুন ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ও সাবমেরিন থেকে চালু করা যায়, এমন মানুষবিহীন যানের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন। রুশ নাগরিকদের কাছে এই দুই ব্যবস্থার উপযুক্ত নামও আহ্বান করেছেন তিনি।

পুতিন বলেন, নতুন ক্ষেপণাস্ত্র ইউরোপ ও এশিয়ায় থাকা যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষাব্যবস্থাকে ফাঁকি দিতে সক্ষম। তাঁর ভাষায়, ‘বিশ্বের যেকোনো স্থানে’ আঘাত হানতে পারবে এই ক্ষেপণাস্ত্র। এটি পরমাণু শক্তিধর ক্ষেপণাস্ত্র।

বিবিসির খবরে বলা হয়, ১৮ মার্চ রাশিয়ায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ধারণা করা হচ্ছে, এ ভাষণের মধ্য দিয়ে পুতিন নিজের নীতি সম্পর্কে জানালেন। প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে দেওয়া এই ভাষণ টেলিভিশনে সম্প্রচার করা হয়।

পুতিন আরও বলেছেন, ‘নতুন ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রটি শনাক্ত করা কঠিন। এটি দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ও এর নির্দিষ্ট সীমা নেই। বর্তমানে যেসব ক্ষেপণাস্ত্র ও আকাশ প্রতিরক্ষাব্যবস্থা ব্যবহার করা হয়, সেগুলো এড়িয়ে যাওয়ার ক্ষমতা রয়েছে এই ক্ষেপণাস্ত্রের।’

ভাষণে রাশিয়ায় দারিদ্র্যের হার অর্ধেকে নামিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন পুতিন। নির্বাচনে জয়ী হলে আগামী ছয় বছর এ নিয়ে কাজ করবেন তিনি। পুতিন বলেন, ‘প্রত্যেক নাগরিককে নিয়েই আমাদের ভাবনা আছে।’ তিনি জানান, ২০০০ সালে রাশিয়ার প্রায় ৪ কোটি ২০ লাখ মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস করত। বর্তমানে তা দুই কোটিতে নেমে এসেছে। এই সংখ্যাটি আরও কমিয়ে আনতে হবে। এ ছাড়া মানুষের গড় আয়ু বৃদ্ধিতে জাপান ও ফ্রান্সকে রাশিয়ার অনুকরণ করা উচিত বলেও জানান ভ্লাদিমির পুতিন।

ভাষণে পুতিন বলেন, ‘আমরা যে স্থিতাবস্থা অর্জন করেছি, তা থেকে আত্মপ্রসাদ অনুভব করার অধিকার আমাদের নেই বিশেষ করে, যখন আমাদের অনেক সমস্যার সমাধান করার প্রয়োজন আছে।’

সরকারি বাণিজ্য ‘ডিজিটালাইজড’ করার ওপর জোর দিয়েছেন পুতিন। তিনি বলেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াই জোরদার করতে এ ব্যবস্থা নিতে হবে। এ সময় তিনি রাশিয়ার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ইন্টারনেটের সংযোগ ছড়িয়ে দেওয়ার কথাও বলেন।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *