Main Menu

ধৈর্য ধরার পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

ডেস্ক রিপোর্ট :

 

বিএনপির উস্কানি উপেক্ষা করে ধৈর্য ধরার পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে তিনি সতর্কাবস্থায় থাকার জন্য আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন। এই অবস্থায় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা আজ বৃহস্পতিবার সারা দেশে দলীয় কার্যালয়গুলোতে সতর্ক অবস্থান করবেন।

আওয়ামী লীগের কয়েকজন নীতিনির্ধারক নেতা বলেছেন, গত কয়েক দিনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করে দলের শীর্ষ নেতাদের কেউ কেউ আজ বৃহস্পতিবার জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণা নিয়ে বিএনপির সাম্প্রতিক ভূমিকা তুলে ধরেছেন। তারা এই মামলার রায় নিয়ে বিএনপির নানামুখী উস্কানিমূলক কার্যক্রম নিয়েও কথা বলেছেন। ওইসব আলোচনায় বলা হয়েছে, সম্ভাব্য সব ধরনের পরিস্থিতি মোকাবেলায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী প্রস্তুত থাকবে। সেই সঙ্গে সতর্ক থাকবে আওয়ামী লীগ।

ইতিমধ্যে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের দলের তৃণমূল নেতাদের কাছে চারটি সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা পাঠিয়েছেন। দলের সব ক’টি সাংগঠনিক জেলা ও উপজেলার সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকদের কাছে জরুরি চিঠির মাধ্যমে এই নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে। এই নির্দেশনার মাধ্যমে গণতন্ত্র ও মুক্তিযুদ্ধ, উন্নয়ন ও স্থিতিশীলতার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র এবং ধ্বংসাত্মক রাজনীতি সম্পর্কে জনগণকে সজাগ ও সতর্ক করার তাগিদ দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে ভোটকেন্দ্রভিত্তিক সাংগঠনিক কমিটি গঠন, পোলিং এজেন্টদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা এবং দলের সদস্য সংগ্রহ ও সদস্যপদ নবায়ন কার্যক্রম জোরদার করার নির্দেশও রয়েছে।

আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারক নেতারা জানিয়েছেন, জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় নিয়ে বিএনপি কোনো নেতিবাচক কার্যক্রম শুরু করলে তাৎক্ষণিকভাবে পাল্টা জবার দেওয়ার প্রস্তুতি রয়েছে আওয়ামী লীগের। রাজধানী ঢাকাসহ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের নেতাকর্মীরা দলীয় কার্যালয়গুলোতে সতর্ক অবস্থায় থাকবেন। তারা প্রয়োজনে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সহায়তা দেবেন। এ ছাড়াও সম্ভাব্য সব ধররের পরিস্থিতি শক্তভাবে মোকাবেলা করার প্রস্তুতি রয়েছে সরকারের।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ বলেছেন, মহানগরের নেতাকর্মীরা আজ সকাল ৯টা থেকে বঙ্গবন্ধু এভিনিউর কার্যালয়ে অবস্থান করবেন। একইভাবে প্রতিটি থানা ও ওয়ার্ডের নেতাকর্মীরা নিজেদের কার্যালয়ে থাকবেন। তবে কোনো কর্মসূচি পালন করা হবে না। কিন্তু রায় নিয়ে বিএনপির পক্ষ থেকে অপ্রিয় কিছু করার চেষ্টা হলে প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান বলেছেন, তারাও আজ সকাল ৯টা থেকে নেতাকর্মীদের নিয়ে দলের গুলশান কার্যালয়ে অবস্থান করবেন। থানা এবং ওয়ার্ডের নেতারাও যার যার অবস্থানে সতর্কাবস্থায় থাকবেন। পরে অবস্থা বুঝে তাৎক্ষণিকভাবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *