Main Menu

পারমাণবিক বোমার বোতাম আমার টেবিলেই : কিম জং-উন – বাংলারদর্পন 

 

অনলাইন ডেস্ক :

০১ জানুয়ারি ২০১৮।

পারমাণবিক বোমা ফেলতে যে বোতামটা টিপতে হবে, এটি নিজের টেবিলেই রয়েছে বলে দাবি করেছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন। উত্তর কোরিয়ার এই নেতা বলেন, বোতামটি সব সময় তাঁর টেবিলেই থাকে।

আজ সোমবার নববর্ষ উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে উন বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের মূল ভূমির পুরোটাই আমাদের পারমাণবিক অস্ত্রের আওতায় রয়েছে। আমার কার্যালয়ের টেবিলে সব সময় পরমাণু অস্ত্রের বোতাম রাখা থাকে। আর এটা হুমকি নয়, বাস্তবতা—এটা খুব ভালোভাবে বুঝে নিয়ে তাদের সতর্ক হওয়া উচিত।’ সিএনএন তাঁর ভাষণটি ইংরেজিতে অনুবাদ করে প্রচার করেছে।

এই নেতা বলেন, ‘উত্তর কোরিয়া “শান্তির সপক্ষে থাকা পারমাণবিক শক্তির অধিকারী দেশ”। এ দেশের ওপর সরাসরি হামলা না হলে আমরা আমাদের পারমাণবিক শক্তি প্রয়োগ করব না।’ তিনি আরও বলেন, ‘পারমাণবিক অস্ত্র ও ক্ষেপণাস্ত্র প্রকৌশল নিয়ে গবেষণার জন্য আমাদের পারমাণবিক যুদ্ধাস্ত্রের ব্যাপক উৎপাদন দরকার। এর ক্ষমতা ও নির্ভরযোগ্যতা এর মধ্যে নিশ্চিত হয়েছে।’

কিম জং-উনের এ বক্তব্যকে ‘স্রেফ বাগাড়ম্বর ছাড়া কিছুই নয়’ বলে মন্তব্য করেছেন আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা কর্মসূচিবিষয়ক প্রতিষ্ঠান লয়ি ইনস্টিটিউটের পরিচালক ইয়ান গ্রাহাম। তিনি বলেন, ‘তাঁর এমন কথা আগেও যে শুনিনি তা নয়। এভাবে তিনি (কিম জং-উন) সবাইকে বোঝাতে চান, এ ক্ষেত্রে তিনিই একমাত্র দায়িত্বে থাকা ব্যক্তি ও নিয়ন্ত্রক। এটা অনেকটা বিজয় ঘোষণার মতো, তাঁদের যতটুকু উদ্বেগ ছিল তা শেষ হয়েছে। তাঁরা যুক্তরাষ্ট্রকে বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করছেন যে যুক্তরাষ্ট্রকে বাধা দেওয়ার ক্ষমতা তাঁদের আছে। কারিগরি দিক দিয়ে নির্ভুল না হলেও তাঁদের আইসিবিএম (ইন্টারকন্টিনেন্টাল ব্যালিস্টিক মিসাইল) বা আন্তমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কার্যকর আছে। তা সত্ত্বেও কিম জং-উন এই পর্যায়ে এভাবেই বিষয়টিকে পাক খাওয়ানোর চেষ্টা করছেন।’






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *