Main Menu

যশোরে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা -বাংলারদর্পন

 

ডেস্ক রিপোর্ট : বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রমের উদ্বোধন করতে যশোর পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যশোরের বিমান ঘাঁটিতে কুচকাওয়াজে যোগদান ছাড়াও তিনি ১৮টি প্রকল্পের উদ্বোধন ও ১২টির ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করবেন।

রোববার (৩১ ডিসেম্বর) ঢাকা থেকে রওনা দিয়ে হেলিকপ্টারে করে সকাল ১১টার কিছু আগে যশোরে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর ঘাঁটি বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানে অবতরণ করেন প্রধানমন্ত্রী। এর আগে সকাল পৌনে ১০টার দিকে হেলিকপ্টারে করে তিনি যশোরের উদ্দেশে রওনা দেন।

উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের পাশাপাশি বিমান বাহিনীর কুচকাওয়াজ ও আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায়ও ভাষণ দেবেন শেখ হাসিনা।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর যশোর আগমন উপলক্ষে বর্ণিল সাজে সেজেছে যশোর শহর ও এর আশপাশের এলাকা। শহরের প্রবেশমুখের কয়েক কিলোমিটার আগে থেকে তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে।

শহরজুড়ে প্রতিটি রাস্তায় কয়েক গজ দূরে দূরেই ছোট-বড় প্রায় দুইশ’ তোরণ শোভা পাচ্ছে। স্বাধীনতা, শেখ রাসেল, শেখ ফজলুল হক মনিসহ বিভিন্ন নামে এ তোরণগুলোর নামকরণ করা হয়েছে। শহরজুড়ে সাজ দেখা যাচ্ছে পোস্টার, প্ল্যাকার্ডেরও। যশোরের রাস্তায় এখন শোভা পাচ্ছে রঙ-বেরঙের পোস্টার-ব্যানার।

সন্ধ্যার পর যশোরের বিভিন্ন রাস্তায় মাইকে স্বাধীনতার গান ও বঙ্গবন্ধুর ভাষণ বাজতে শোনা যায়। গোটা যশোরজুড়েই বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। পোস্টারে যশোর বিভাগ ও যশোরকে সিটি করপোরেশন ঘোষণা এবং সাংস্কৃতিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার দাবি করা হয়েছে।

সকালে যশোর এসেই প্রধানমন্ত্রী বিমান বাহিনী একাডেমিতে রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ (শীতকালীন) অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। এরপর বিকেল পৌনে ৩টায় তিনি যোগ দেবেন যশোর ঈদগাহ ময়দানে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায়।

আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভাকে কেন্দ্র করে দলের নেতাকর্মীদের মধ্যেও ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা ও প্রাণ চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে।

জনসভার আগে যশোর ঈদগাহ ময়দান থেকে উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন ও ভিত্তি প্রস্তরগুলো স্থাপন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী যেসব প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন, সেগুলো হলো- কপোতাক্ষ নদের জলাবদ্ধতা দূরীকরণ প্রকল্প (১ম পর্যায়); ‘তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় শিক্ষার মানোন্নয়নের লক্ষ্যে নির্বাচিত বেসরকারি কলেজসমূহের উন্নয়ন’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় যশোরসদর উপজেলাস্থ আমদাবাদ কলেজ ১ম পর্যায়ে নির্মিত দোতলা ভবনের ৩য় ও ৪র্থ তলার সম্প্রসারণ কাজ; একই প্রকল্পের আওতায় শার্শা উপজেলার পাকশিয়া কলেজ ১ম পর্যায়ে নির্মিত দোতলা ভবনের ৩য় ও ৪র্থ তলার সম্প্রসারণ কাজ; বাঘারপাড়া উপজেলার বাঘারপাড়া ডিগ্রি কলেজ ১ম পর্যায়ে নির্মিত দোতলা ভবনের ৩য় ও ৪র্থ তলার সম্প্রসারণ কাজ; যশোর জেলার মনিরামপুর উপজেলা সদরে ৫০০ আসন বিশিষ্ট শহীদ মশিয়ুর রহমান অডিটোরিয়াম-কাম মাল্টি পারপাস হল, নির্মাণ; পাবলিক লাইব্রেরির (৩য় পর্যায়) উন্নয়ন প্রকল্প; যশোর মেডিকেল কলেজের একাডেমিক ভবন নির্মাণ; হৈবতপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিস ভবন নির্মাণ; নরেন্দ্রপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিস ভবন নির্মাণ; মহাকাল ইউনিয়ন ভূমি অফিস ভবন নির্মাণ; পাতিবিলা ইউনিয়ন ভূমি অফিস ভবন নির্মাণ; যশোর পুলিশ সুপার ভবন নির্মাণ; যশোর পুলিশ হাসপাতাল নির্মাণ; জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের পূর্ণাবয়ব প্রতিকৃতি ভাস্কর্য নির্মাণ; নগর অঞ্চল উন্নয়ন প্রকল্প এর আওতায় যশোর শহরের ১৩ কিলোমিটার সড়ক ও ২২ কিলোমিটার ড্রেন নির্মাণ কাজ; ঝিকরগাছা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ ও অভয়নগরের মালোপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবন নির্মাণ প্রকল্প।

এছাড়া ভৈরব রিভার বেসিন এলাকার জলাবদ্ধতা দূরীকরণ ও টেকসই পানি ব্যবস্থাপনা উন্নয়ন প্রকল্প; যশোর-বেনাপোল জাতীয় মহাসড়ক (এন-৭০৬) যথাযথমানে ও প্রশস্ততায় উন্নীতকরণ প্রকল্প; যশোর-খুলনা জাতীয় মহাসড়ক যশোর অংশ (পলাশবাড়ী হতে রাজঘাট অংশ) যথাযথমানে উন্নীতকরণ প্রকল্প; কেশবপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র নির্মাণ; যশোর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার নির্মাণ; ৩য় নগর পরিচালনা ও অবকাঠামো উন্নীতকরণ প্রকল্পের আওতায় যশোর শহরের ২৫ কিলোমিটার সড়ক ও ২৪ কিলোমিটার ড্রেন নির্মাণ কাজ; নগর অঞ্চল উন্নয়ন প্রকল্প এর আওতায় হামিদপুর কম্পোস্ট প্ল্যান্ট, প্রি-ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট, বায়োগ্যাস প্ল্যান্ট এবং কন্ট্রোল ল্যান্ডফিল সেল নির্মাণ; ঝিকরগাছা উপজেলা পরিষদের সম্প্রসারিত প্রশাসনিক ভবন ও হলরুম নির্মাণ; বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণের ম্যুরাল স্থাপন; শেখ রাসেল জিমনেসিয়াম ভবন ও ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) উন্নয়ন কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করবেন প্রধানমন্ত্রী।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *