Main Menu

রাজবাড়ীর রাবেয়া পরিবহনের বিরুদ্ধে যাত্রীদের সাথে প্রতারণা ও হয়রানির অভিযোগ

 

রাজবাড়ী প্রতিনিধি : রাজবাড়ী জেলার ‘রাবেয়া পরিবহন কোম্পানি’ দীর্ঘদিন ধরে সুনামের সঙ্গে যাত্রীসেবা দিয়ে এলেও বর্তমানে কোম্পানিটির বিরুদ্ধে একের পর এক যাত্রীদের সঙ্গে প্রতারণা ও হয়রানির অভিযোগ উঠছে।

 

গত ৮সেপ্টেম্বর যাত্রীদের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ‘লক্কর ঝক্কর গাড়ি দিয়ে প্রতারণা, রাবেয়া পরিবহনে যাত্রী দুর্ভোগ চরমে’ শিরোনামে রাজবাড়ী জেলার প্রথম অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘রাজবাড়ী নিউজ২৪.কম’-এ সংবাদ প্রকাশ হয়।

 

ওই সংবাদ প্রকাশের পর ‘রাজবাড়ী নিউজ২৪.কম’-এর কাছে রাবেয়া পরিবহনের বিরুদ্ধে যাত্রীদের বিভিন্ন অভিযোগ আসে।

 

সর্বশেষ শুক্রবার (২২ ডিসেম্বর) রাত ১১ টায় পরিবহন কোম্পানিটির বিরুদ্ধে পিকনিকের রিজার্ভ ভাড়ায় চুক্তিবদ্ধ হয়ে অগ্রিম টাকা নিয়ে নির্ধারিত স্থানে গাড়ি না পাঠিয়ে যাত্রীদের সঙ্গে প্রতারণা ও হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 

রাজবাড়ী সদর উপজেলার পাঁচুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান কাজী আলমগীর হোসেনসহ ওই পিকনিকের কয়েকজন যাত্রী এ অভিযোগটি করেছেন।

 

ইউপি চেয়ারম্যান কাজী আলমগীর হোসেন বলেন, ২২ ডিসেম্বর আমার ইউনিয়নের প্রায় ৫০জন লোক নিয়ে কক্সবাজার, বান্দরবানসহ কয়েকটি স্পটে পিকনিকে যাওয়ার জন্য গত ২ ডিসেম্বর ৮৭ হাজার টাকা দিয়ে তিনদিনের জন্য রাবেয়া পরিবহনের একটি বাস রিজার্ভ করা হয়। চুক্তিমতো রাবেয়া পরিবহনের ম্যানেজার আব্দুল আজিজকে পাঁচ হাজার টাকা অগ্রিম দেওয়া হয়।

 

২২ ডিসেম্বর বিকেল তিনটায় বাসটি আমার ইউনিয়নের কোনাইল বাজারে উপস্থিত হবার কথা ছিলো। আমি ও আমার রিবারসহ পিকনিকের সকল যাত্রীরা বিকেল তিনটার মধ্যেই কোনাইল বাজারে উপস্থিত হলেও বাসটি বাজারে পৌঁছায় না। এরপর রাবেয়া পরিবহনের ম্যানেজার আব্দুল আজিজকে বার বার ফোন দেওয়া হলে তিনি শুধু ‘এই যে আধাঘন্টা পর গাড়ি যাচ্ছে, এই যে গাড়ি রওনা দিয়েছে’ বলে টালবাহানা করতে থাকেন। এভাবে রাত ১০টা পর্যন্ত আমরা কোনাইল বাজারে বাসের জন্য অপেক্ষা করতে থাকি। এরপরেও গাড়ি না আসাতে আমরা সবাই যার যার বাড়িতে চলে যাই। তিনি আরও বলেন, রিজার্ভে চুক্তিবদ্ধ হয়ে অগ্রিম টাকা নিয়ে নির্ধারিত স্থানে গাড়ি না পাঠিয়ে ‘রাবেয়া পরিবহন কর্তৃপক্ষ’ যাত্রীদের সঙ্গে প্রতারণা ও হয়রানি করে অপরাধ করেছেন। আমরা এ বিষয়ে রাজবাড়ী জেলা বাস মালিক গ্রুপের সভাপতি কাজী ইরাদত আলী মহোদয়ের কাছে অভিযোগ করবো।

 

রাবেয়া পরিবহনের মালিক মোঃ লিটন মোল্লা, জানান, কয়েকদিন যাবত ঘণকুয়াশা ও যানজোট এর কারনে সময় মত নদী পাড় হতে পারছে না পরিবহন গুলো, তাই এধরনের সমস্যা হচ্ছে এটা ইচ্ছাকৃত নয়।

 

এ বিষয়ে কথা বলতে রাবেয়া পরিবহনের ম্যানেজার আব্দুল আজিজের সঙ্গে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, যেই বাসটি পিকনিকের রিজার্ভ ভাড়ায় চুক্তি করা হয়েছিলো, সেটি ঢাকা থেকে ফেরার পথে পাটুরিয়া ঘাটে যানজটে আটকা পড়েছিলো।

 

এ কারণে বাসটি নির্ধারিত সময়ে কোনাইল বাজারে পৌঁছাতে পারেনি। তবে রাত নয়টার দিকে বাসটি কোনাইল বাজারে যাওয়ার উদ্দেশ্যে ফেলুর দোকান এলাকায় পৌঁছালে পিকনিকের যাত্রীরা আর পিকনিকে যাবেন না বলে জানান। এ কারণে, সেখান থেকে বাসটি ফিরে আসে। যাত্রীরা চাওয়ামাত্র অগ্রিম নেওয়া পাঁচ হাজার টাকা ফেরৎ দিয়ে দেওয়া হবে বলেও জানান ম্যানেজার আব্দুল আজিজ।

 






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *