Main Menu

আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ভুমি দখলের চেষ্টা : প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

 

ফেনী প্রতিনিধি : সোনাগাজীর প্রতিষ্ঠিত ব্যাবসায়ী জয়নাল কোম্পানী ও তার ভাই মো: ইলিয়াছের পৈত্রিক সম্পত্তি জোরপুর্বক জবর দখলে ব্যার্থ হয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে।

খোকন চেয়ারম্যানের ক্যাডার বাহীনির অব্যাহত অত্যাচার ও হামলার মুখে চরম নিরাপত্তা হীনতায় পড়ে জীবন ্এবং  সম্পদ রক্ষার্থে দিশেহারা হয়ে পড়েছে ক্ষতিগ্রস্থ দুই ভাই।

সরজমিনে জানা যায়, তাদের পিতা সুলতান আহম্মদ ১৯৮১ সালের ৭৪৬২/৭৫২০/৭৫৩৭/৭৫০৫/৭৪৫১/৭৪৩৮ ১৯৮৬ সালের ৪৮০৯ ও ১৯৯৫ সালের ৬৩১১/৬৩১৩ নং  ছাপ কবলামুলে এবং জয়নাল আবদীন কোম্পানী ১৯৮৬ সালের ৪৮১০ নং ছাপ কবলামুলে ১৯৯৭ সালের ২৫নং এওয়াজনামা দলিল মুলে সোনাগাজী পৌরসভাস্থ ৭নং ওয়ার্ডে চর ছান্দিয়া মৌজার মধ্যে ৩৪০৩ দাগে ৮ শতক, ৩৪০৪ দাগে ৪ শতক , ৩৪১৫ দাগে ১৬ শতক, সর্বমোট ৩ দাগে ২৮ শতক মালিক থাকিয়া যথাযথভাবে নামজারি জমাখারিজ ও বিএস জরিপে সঠিকভাবে রেকর্ড করিয়া সরকারী খাজনাপাতি পরিশোধ ক্রমে ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান , আবাসিক বাসাবাড়ী ইত্যাদি নির্মান করে ভোগদখলে থাকা অবস্থায় পরোলক গমনের পরে ওই দুই ভাই মালিক হন।

জয়নাল কোম্পানী ও ইলিয়াছ জানান, চর ছান্দিয়া ইউনিয়নের দুইবারের চেয়ারম্যান ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক সামচুদ্দিন খোকন ক্ষমতার দাপট ও পেশী শক্তি প্রয়োগ করে অত্র অঞ্চলে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে। আমরা দুই ভাইকে নিরীহ পেয়ে ৪০বছরের ভোগ দখলীয় ওই সম্পত্তি জবর দখল করে নেয়ার পায়তারা শুরু করে। খোকন চেয়ারম্যান থাকাকালে সন্ত্রাসীকায়দায় ইতিপুর্বে আমাদের মালীকী ৪শতক জায়গার মধ্যে জোরপুর্বক রান্নাঘর , বাথরুম ও টিনশেড ঘর দিয়ে জবর দখল করে নেয়। আরো সম্পত্তি জবর দখলের জন্য মরিয়া হয়ে অব্যাহত হামলা, মামলা দিয়ে হয়রানী করে চলেছে। তারা আরো বলেন, খোকন ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে উক্ত জমি তার নামে ভুয়া জমা খারিজ করেছিল। পরবর্তীতে আমরা আপত্তি দিলে গত ১৮/১২/২০১৪ ইং তারিখে খোকন সোনাগাজী এসিল্যান্ড অফিসে গিয়ে উক্ত জমিতে তার কোন দাবী নেই মর্মে লিখিত অঙ্গীকার নামা দাখিল করে। খোকন মালীক না হয়েও ৩৪০৩ দাগে আমাদের ৪০ বছরের পুরনো বাড়ীঘরে মামলা দিয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করায়। কিন্তু সে নিজেই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে দখলে নেয়ার জন্য মরিয়া হয়ে উঠে। আমাদের পিতা সুলতান আহম্মদের গড়া ৪০ বছরের পুরনো বাড়ী ঘরে আমরা শান্তিপুর্ন ভাবে বসবাস ও ব্যাবসা বানিজ্য করে আসছি। কখনো কারো সাথে বিরোধ হয়নি।

 

পুলিশ , প্রত্যক্ষদর্শী ও ভুক্তভোগী সুত্রে জানা যায়, ২০ডিসেম্বর সকাল ৬টায় খোকনের নির্দেশে ভাড়াটে সন্ত্রাসী  আবুল কালাম , খোকনের ভাই সুমন ও তার পিতা মোস্তফার নেতৃত্বে ৩০/৩৫ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ৩৪১৫ দাগের সম্পত্তি দখলের জন্য জয়নাল’র ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান ও বসতঘরে হামলা চালায়। এ সময় সন্ত্রাসীরা ব্যাপক আতংক ছড়িয়ে সীমানা বেড়া ভাংচুর করে। খবর পেয়ে সোনাগাজী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এ ব্যাপারে জয়নাল আবদীন বাদী হয়ে মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

ওসি মো. হুমায়ুন কবির জানান, অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তদন্তসাপেক্ষে আইনানুগ ব্যাবস্থা নেয়া হবে। এ ব্যাপারে সামছুদ্দিন খোকন জানান, ব্যাক্তিগত সফরে কাতারে এসেছি। বিরোধীয় জমিতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

প্রতিবেদকের প্রশ্নের জবাবে জয়নাল কোম্পানী  বলেন, দীর্ঘদিন ধরে সোনাগাজী তে ব্যাবসা করে আসছি। ব্যাংকের দায় দেনা শোধ করার জন্য ৫ শতক জমি বিক্রী করি। কিন্তু বিনাকারনে খোকন উক্ত জমি বুঝিয়ে দিতে দিচ্ছেনা। স্থানীয় পঞ্চায়েতগণ দফায় দফায় সুরাহার চেষ্টা করলেও খোকন ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে সালিশ মানেনি। অবশিষ্ট জমিতে উন্নয়ন কাজের প্রস্তুতি নিলে খোকন থানায় মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করে। থানা হইতে সমঝোতা বৈঠকের আহ্বান জানালে সে তালবাহানা করিয়া বৈঠকে বসতে রাজী হয়নি। উভয় পক্ষের আইনজীবির মাধ্যমে সুরাহার চেষ্টা করলেও সে কৌশলে এড়িয়ে যায়। প্রকৃতপক্ষে সে সুরাহা চায়না। খোকন ভালোভাবেই জানে আমাদের মালীকি -দখলীয় ওই সম্পত্তিতে তার মিথ্যা দাবী কখনো টিকবেনা। তাই সে সালিশ দরবারে না বসে বলপ্রয়োগ করে বার বার জবর দখলের চেষ্টা করছে।তার হামলা মামলার মুখে আমাদের জানমাল ,ব্যাবসাপ্রতিষ্ঠান , বসতঘর কোন কিছুই নিরাপদ নয়। ওই জুলুমবাজ ভুমিদস্যুর হাত থেকে রেহাই পেতে আমরা প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *