Main Menu

চট্টগ্রামে ফেন্সিডিলসহ ২ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৭

 

চট্টগ্রাম ব্যুরো :

র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদ্ঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃংখলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। র‌্যাবের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, ডাকাত, খুনি, বিপুল পরিমান অবৈধ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার, মাদক উদ্ধার, ছিনতাইকারী, অপহরণকারী ও প্রতারকদের গ্রেফতার করে সাধারণ জনগনের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম এ বৎসর ০১ জানুয়ারি ২০১৭ হতে অদ্য ০৩ ডিসেম্বর ২০১৭ ইং তারিখ পর্যন্ত সর্বমোট ২৮৮ টি বিভিন্ন ধরনের অস্ত্রসহ মোট ৪৪টি ম্যাগাজিন এবং ৩,৪৪৫ রাউন্ড বিভিন্ন ধরনের গুলি/কার্তুজ উদ্ধারের পাশাপাশি ৬৮ লক্ষ ৭৪১ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এর পাশাপাশি ২৩ হাজার ৮৭৪ বোতল ফেন্সিডিল, ১,৪৩৮ বোতল বিদেশী মদ ও বিয়ার, ০৩ লক্ষ ৯১ হাজার ৯৫০ লিটার দেশীয় তৈরী মদ, ৬৫৬ কেজি ১৮০ গ্রাম গাঁজা, ৩৬০ গ্রাম হেরোইন এবং ৪০০ গ্রাম আফিম উদ্ধার করেছে।

 

এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৭ চট্টগ্রাম গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী একটি পিকআপ যোগে বিপুল পরিমাণ ফেন্সিডিল নিয়ে কুমিল্লা থেকে চট্টগ্রামের দিকে আসছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে অদ্য ০৩ ডিসেম্বর ২০১৭ ইং তারিখ আনুমানিক ২০৩০ ঘটিকার সময় স্কোয়াড্রন লীডার শাফায়াত জামিল ফাহিম এর নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল চট্টগ্রাম মহানগরীর আকবরশাহ থানাধীন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সিটি গেইট সংলগ্ন পুলিশ বক্সের সামনে রাস্তার উপর একটি বিশেষ চেকপোষ্ট স্থাপন করে গাড়ি তল্লাশী করতে থাকে। এ সময় কুমিল্লা হতে চট্টগ্রামগামী ০১টি পিকআপ এর গতিবিধি সন্দেহজনক হলে র‌্যাব সদস্যরা পিকআপটিকে থামানোর সংকেত দিলে পিকআপটি থামিয়ে ০২ জন ব্যক্তি দৌড়ে পালানোর চেষ্টাকালে র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে আসামী ১। মোঃ সরোয়ার ইসলাম (১৮), পিতা- জাহাঙ্গীর আলম এবং ২। মোহাম্মদ আলী (২১), পিতা- আবুল হাসেম উভয়ের গ্রাম -মধ্যম মটুয়া, থানা- ছাগল নাইয়া, জেলা-ফেনীদের’কে আটক করে।

পরবর্তীতে উপস্থিতি সাক্ষীদের সম্মুখে উক্ত পিকআপটি (ঢাকা মেট্রো-অ-০৫৭৪) তল্লাশী করে পিকআপটির ভিতরে সুকৌশলে লুকানো অবস্থায় ২৪৬ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধারসহ উক্ত পিকআপটি জব্দ করা হয়। উদ্ধারকৃত ফেন্সিডিলের আনুমানিক মূল্য ০১ লক্ষ ৯৬ হাজার ৮০০ টাকা এবং জব্দকৃত পিকআপটির ২৫ লক্ষ টাকা।

 

গ্রেফতারকৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত মালামাল সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে ১৯৯০ সনের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের ১৯(১) টেবিল এর ৩(খ)/২১/২৫ ধারা মোতাবেক চট্টগ্রাম মহানগরীর আকবরশাহ থানায় হস্তান্তর কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *