Main Menu

চট্টগামে অনির্দিষ্ট কালের পরিবহণ ধর্মঘট : জনজীবনে ভোগান্তি

 

ওমর ফারুক :

চট্টগ্রাম মেট্রো এলাকায় পুলিশ কর্তৃক মালিক ও শ্রমিকদের হয়রানি,নির্যাতন,রুট পারমিট বিহীন গাড়ি চলাচল,ও অবৈধ ভাবে গণপরিবহণ পরিচালনূাকারী  ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম বন্ধসহ ১১ দফা দাবীতে  গতকাল ৩রা ডিসেম্বর হইতে গণপরিবহণ ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে চট্টগ্রাম

মেট্রো গণপরিবহণ মালিক গ্রুপ। গত কাল সকালে চট্টগ্রাম শহর এলাকার সড়ক গুলো ছিল পরিবহণ শুন্য। প্রতিটি বাস ষ্ট্যান্তসহ সড়কের বিভিন্ন স্থানে লোকজন গাড়ির জন্য অপেক্ষা করতে থাকলে ভীর জমে যায়।বিশেষ করে স্কুলগামী ছাত্র-ছাত্রী এবং অফিসগামীরা পড়ে চরম ভোগান্তিতে। অবশ্য বেলা ১০টার পর থেকে কিছু কিঢ়ু গণপরিবহণ রাস্তায় নামতে শুরু করে।তবে পরিবহণ মালিকদের সাথে আলাপ করে জানা গেছে,মেট্রো গণপরিবহণ মালিক গ্রুপ  চট্টগ্রাম মেট্রো গণপরিবহণ মালিক সংগ্রাম পরিষদের  বানারে গণপরিবহণ দর্মঘট ডাকলেও পরিবহণ মালিকদের সবগুলি সংগঠন এই ধর্মঘট ডাকেনি।

এই ব্যাপরে চট্টগ্রাম  জেলা সড়ক পরিবহণ মালিক গ্রুপের অতিরিক্ত সচিব এবং চট্টগ্রাম সড়ক পরিবহণ মালিক সমিতির ভাইস প্রেসিডেন্ট গোলাম রসুল বাবুলের সাথে তার মুঠু ফোনে জানতে চাইলে , তারা এই ধরণের কোন পরিবহণ ধর্মঘট ডাকেননি বলে জানান্ এবং এই ধর্মঘটে তাদের কোন সমর্থনও নাই বলে জানান। অপর দিকে মেট্রো গনপরিবহণ মালিক গ্রুপের সভাপতি বেলায়েত হোসেনের সাথে তার মুঠু ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন “গণপরিবহণ মালিকদের ৬টি নিবন্ধিত সংঘটন ঐক্যবদ্ধ ভাবে এই ধর্মঘটের ডাক দিােছে।তারা তাদের সিদ্ধান্ত অটল।এবং  বিকাল ৫টায় তারা তাদের আগ্রাবাদস্থ কার্যালয়ে পরবরতী করণীয় নির্ধারণে বৈঠকে বসবেন।

 

এদিকে চটলটগ্রাম মহানগরী হিউম্যান হলার সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোঃ নুরুল ইসলামের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন,চট্টগ্রাম মেট্রো গণপরিবহণ মালিক গ্রুপের গাড়ি ব্যতীত অন্য সব গাড়ি বর্তমানে চলাচল করছে।এগুলির মধ্যে রয়েছে যাত্রী সেবা,সিটি ওউনার্স এসোসিয়েশন,সিটি পরিবহণ মালিক সমিতি,চট্টলা পরিবহণ মালিক সমিতি এবং মহানগর পরিবহণ মালিক সমিতি।এদিকে আজ সকালে গাড়ি চলাচলে বাধা দেওয়ায় নগরীর বিভিন্ন স্থান থেকে পুলিশ কয়েক জনকে গ্রেফতার করেছে বলে জানা গেছে।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *