Main Menu

পিরোজপুরে ২ কিশোরের চুল কর্তন : ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

 পিরোজপুর :

পিরোজপুরের মঠবাড়ীয়ায় দুই কিশোরকে মারধর ও চুল কেটে দেয়ার অভিযোগে ছাত্রলীগের নেতার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। যুবলীগের বিক্ষোভ সমাবেশে যোগ দেওয়ায় তাদের নির্যাতন করা হয়েছে উল্লেখ করে দুই কিশোরের প্রতিবেশী নূরনবী আদনান বুধবার (১২ জুলাই) মামলাটি করেছেন।

মামলার আসামিরা হলেন, মিরুখালী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি লাভলু তালুকদার, মামুন জমাদ্দার, বেল্লাল জমাদ্দার ও মহিবুল্লাহ।

মঠবাড়ীয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাজহারুল আমীন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, ‘নির্যাতনের শিকার ফেরদৌস স্থানীয় মিরুখালী স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণির ছাত্র। সে বড়শৌলা এলাকার মো. মানিক তালুকদারে ছেলে। আর মিরাজ উত্তর মিরুখালী গ্রামের মো. আলতাফ হাওলাদারের ছেলে।’

তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় এক সাংবাদিক ও এক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য ডা. রস্তুম আলী ফরাজীর অনুসারী ও ডা. রস্তুম আলী ফরাজী ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক ফারুক হোসেন বৃহস্পতিবার (৬ জুলাই) রাতে একটি মামলা করেন। এর প্রতিবাদে মঠবাড়ীয়া যুবলীগ সোমবার (১০ জুলাই) বিকালে মঠবাড়ীয়া উপজেলা শহরে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে। সমাবেশে যোগ দেওয়ায় দুই কিশোরকে মারধর ও চুল কেটে দেয়া হয় বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে।

দুই কিশোরকে উদ্ধৃত করে মাজহারুল আমীন জানান, ‘দৈনিক সকালের খবরের সিনিয়র রিপোর্টার ও ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটির সাবেক সহ-সভাপতি আজমল হক হেলাল ও মঠবাড়ীয়ার শাপলেজা ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি নুরুল আমীন রাসেলের বিরুদ্ধে তথ্য প্রযুক্তি আইনে মামলা করা হয়। সংসদ সদস্য ডা. রস্তুম আলী ফরাজীর অনুসারী প্রভাষক ফারুক হোসেন ৫৭ ধারায় মামলাটি করে। এর প্রতিবাদে মঠবাড়ীয়া যুবলীগ সোমবার (১০ জুলাই) বিকালে মঠবাড়ীয়া উপজেলা শহরে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে। তারা সমাবেশে যোগ দেয়। সন্ধ্যায় ফেরার পথে কাটাখালী বাজার সংলগ্ন সড়কে লাভলু তালুকদার ও তার সহযোগী মামুন জমাদ্দার, বেল্লাল জমাদ্দার ও মহিবুল্লাহসহ কয়েকজন তাদেরকে মারধর করে। মঙ্গলবার (১১ জুলাই) সকালে তারা আবারও দুই কিশোরকে ডেকে নিয়ে মারধর করে চুল কেটে দেয়।’

মঠবাড়ীয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আরিফুজ্জামান সিফাত জানান, ‘লাভলু তালুকদার যে কমিটির সভাপতি, সেই কমিটির মেয়াদ তিন বছর আগে শেষ হয়ে গেছে। তিনি এখন যুবলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় হওয়ার চেষ্টা করছেন।’

আরিফুজ্জামান সিফাত আরও জানান, ‘স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য ডা. রস্তুম আলী ফরাজী ও তার লোকজনের সঙ্গে তিন নম্বর মিরুখালী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি লাভলু তালুকদারের সখ্যতা রয়েছে।’

লাভলু তালুকদার দুই কিশোরকে মারধর ও চুলকাটার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘ফেরদৌসের অভিভাবক হিসেবে আমি তাকে শুধু শাসিয়েছি।’

মঠবাড়ীয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও টিকিকাটা ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রিপন বলেন, ‘স্কুলছাত্র ফেরদৌস ও কিশোর মিরাজের চুল কাটার সঙ্গে লাভলু তালুকদার জড়িত নয়। তাকে ফাঁসানো হয়েছে।’

উল্লেখ্য, সংসদ সদস্য ডা. রস্তম আলী ফরাজীর বিরুদ্ধে প্রকাশিত খবর সাংবাদিক আজমল হক হেলাল তার ফেইসবুকে শেয়ার দেন। এ ঘটনায় ডা. রস্তুম আলী ফরাজীর অনুসারী ও ডা. রস্তুম আলী ফরাজী ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক ফারুক হোসেন বৃহস্পতিবার (৬ জুলাই) রাতে মঠবাড়ীয়া থানায় সাংবাদিক আজমল হক হেলাল ও যুবলীগ নেতা নুরুল আমীন রাসেলের বিরুদ্ধে তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় মামলা দায়ের করেন। এ মামলার প্রতিবাদে পিরোজপুর ও মঠবাড়ীয়ায় মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে সাংবাদিকরা।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *