Main Menu

সুনামগঞ্জে চেয়ারম্যান প্রার্থী ও ভোটার গ্রুপের মধ্যে গুলাগুলি ও সংঘর্ষ

মোজাম্মেল আলম ভূঁইয়া- সুনামগঞ্জ :
সুনামগঞ্জে ৪র্থ ধাপে
অনুষ্টিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোট না দেওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে
চেয়ারম্যান প্রার্থী ও ভোটার গ্রুপের লোকজনের মধ্যে গুলাগুলি ও সংঘর্ষের ঘটনা
ঘটেছে। প্রায় ২ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষের ঘটনায় উভয়পক্ষে ১০জন আহত হয়ে বলে খবর
পাওয়া গেছে।

আহতদের মধ্যে আমিনুল চৌধুরী (২৬) ও আল-আমিন চৌধুরী (৩৮) কে সিলেট
ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সুফি মিয়া (৫৫), ইদু মিয়া (৩০) কে
দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যান্য আহতদের প্রাথমিক
চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। আর এই সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটেছে আজ রবিবার (২
জানুয়ারী ) দুপুর ১২টায়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে- জেলার দিরাই উপজেলার তাড়ল ইউনিয়নে
আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকার প্রার্থী আহম্মদ চৌধুরীকে ৪র্থ ধাপে
অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোট না দেওয়া নিয়ে একই ইউনিয়নের
প্রভাবশালী সুফি মিয়ার সাথে বিরোধ সৃষ্টি হয়। তারই জের ধরে গতকাল শনিবার
(১ জানুয়ারী ) দুপুরে দিরাই বাজারের রাস্তায় চেয়ারম্যান প্রার্থী আহম্মদ
চৌধুরী ও তার লোকজন সুফি মিয়ার ওপর হামলা চালায়। এঘটনার প্রেক্ষিতে রাত
১১টায় আহত সুফি মিয়া বাদী হয়ে আহম্মদ চৌধুরীকে প্রধান আসামী করে
থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

আজ রবিবার (২ জানুয়ারী) সকাল ১০টায় মামলা দায়েরের বিষয়টি জানতে পেরে
আহম্মদ চৌধুরীর লোকজন দেশীয় অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে আবার সুফি মিয়া বাড়িতে
গিয়ে হামলা করে। এখবর পেয়ে সুফি মিয়ার লোকজন অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে আসে। পরে
দু’পক্ষের মধ্যে শুরু হয় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, ইট-পাথর নিক্ষেপ ও গুলাগুলি। এঘটনার খবর

পেয়ে দুপুরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে অনেক চেষ্টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
তবে প্রায় ২ঘন্টাব্যাপী ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, ইট-পাথর নিক্ষেপ, গুলাগুলি ও সংঘর্ষে
উভয়পক্ষের ১০জন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে দিরাই থানার ওসি মোঃ আজিজুর রহমান
সাংবাদিকদের বলেন- ঘটনাস্থল থেকে গুলির খোসা উদ্ধার করাসহ আহতদের
হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।
এব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মোজাম্মেল আলম ভূঁইয়া

শেয়ার করুনঃ





Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *