Main Menu

দুটি অবুঝ শিশুর কান্না

ফেনী প্রতিনিধি :
এক বছর আগে ডাকাতের গুলিতে দক্ষিণ আফ্রিকায় নিহত হন আকলিমা আক্তার’র স্বামী নুর হোসেন। তাদের ৫ ও ২ বছরের ছোট্ট দুটি কন্যা সন্তান (মুনতাহা ও মানহা) রয়েছে। বাবা হারা কন্যাদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে শশুরের অনুরোধে এবছরের জুলাই মাসে দিকে দক্ষিণ আফ্রিকা ফেরত দেবর নুর উদ্দিনকে বিয়ে করেন আকলিমা আক্তার।

বাবার আদর দিয়েই ভাতিজিদের আগলে রাখতেন নুর উদ্দিন। অবুঝ দুই শিশু আব্বু বলেই ডাকতেন তাকে। আদরের কমতি ছিলনা। বাবার স্মৃতি অনেকটা ভুলেও গেছে তারা।

শনিবার সন্ধায় ঢাকা- চট্টগ্রাম মহা সড়কের ফেনীর মুহুরীগঞ্জে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় এবার তাদের মাকে ও পিতাকে হারালো ছোট্ট শিশুরা। অবশিষ্ট দুনিয়াতে তাদের আর কেউই রইল না।

মায়ের গলা জড়িয়ে ধরে ঘুমানো দুই শিশুর কান্না আকাশ পাতাল ভারি করে
তুলেছে। মা বাবা হারা ছোট্ট অবুঝ এতিম কন্যা শিশু দুটির কি হবে? এমনটা প্রশ্ন জানাজায় আগত সবার।

রবিবার সকালে দাপনের সময় মায়ের মরদেহ জড়িয়ে ধরে তাদের কান্না শত শোকার্ত মানুষকে কাঁদিয়েছে।

ফেনী সদর উপজেলার কালিদহ ইউনিয়নের পূর্ব গোবিন্দপুর গ্রামের আবুল কাশেম
সওদাগরের ছেলে নূর উদ্দিন (৩৫) এবং তার স্ত্রী আকলিমা আক্তার (২৮)।
মুহুরীগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মনির হোসেন জানান, ওই দম্পতি মোটরসাইকেলে করে চট্টগ্রামের মিরসরাই থানার বারইয়ার হাটের আরশি নগর ফিউচার পার্কে বেড়াতে গিয়েছিলেন।

সেখানে থেকে ফেনী ফেরার পথে মহাসড়কের মুহুরীগঞ্জের ইকবাল সিএনজি ফিলিং
স্টেশনের সামনে তারা দুর্ঘটনায় পড়েন। মোটরসাইকেলের চাকায় আকলিমার ওড়না
পেঁচিয়ে যায়। তাতে মোটরসাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তায় পড়ে যায়। পেছন
থেকে আসা দ্রুতগামী একটি ট্রাক তাদের চাপা দেয়।

শেয়ার করুনঃ





Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *