Main Menu

টেকনাফ ও রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কড়া লকডাউন

কক্সবাজার   :
টেকনাফে কঠোর লকডাউনে পালনে  মাঠে নেমেছে উপজেলা প্রশাসন৷ বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন স্হানে তৎপর রয়েছে সেনাবাহিনী,  পুলিশ,  র‌্যাব,  বিজিবি, কোস্টগার্ড ও নৌবাহিনীর সহ উপজেলা প্রশাসন। পরিচালনা করেছে যৌথ অভিযানও  ।

করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুহার রোধে সরকার ঘোষিত ৭ দিনের কঠোর লকডাউনের প্রথম দিন চলছে টেকনাফে । 

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোঃ পারভেজ চৌধুরী জানান, 

” লকডাউন সফল করতে প্রথম দিনের শুরুতেই ভোর থেকে প্রচণ্ড বৃষ্টির মধ্যেও সেনা বাহিনী, বিজিবি, র‌্যাব ও পুলিশসহ বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী টেকনাফ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় টহল জোরদার করেছে।  কোথাও কেথাও 

অভিযানও  পরিচালনা করা হয়েছে  । উপজেলার প্রতিটি প্রবেশমুখসহ শহরের বিভিন্ন স্থানে সকাল থেকেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতি রয়েছে।  রাস্তায় বের হওয়া মানুষসহ গাড়ি তল্লাশি করা হচ্ছে। এবং যারা দোকানপাট খোলা রেখেছেন তাদেরকে জরিমানা করা হয়েছে। ক্ষেত্র বিশেষে উপজেলা প্রশাসন মাক্স বিতরণ করা হয়েছে।’ 

রোহিঙ্গা ক্যাম্পেও কড়া লকডাউন : 

এদিক কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্প সমুহে কঠোর লক ডাউন বাস্তবায়ন করছে প্রশাসন।। 

উখিয়ার কুতুপালং, লম্বাশিয়া, বালুখালী, থাইংখালী টেকনাফের চাকমারকুল, উনছিপ্রাং, লেদা, জাদিমুড়া ও শামলাপুরের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দায়িত্বরত সিআইসি, এপিবিএন সদস্য, আনসার সদস্যসহ সংশ্লিষ্টরা সকাল থেকে ক্যাম্পের প্রবেশপথ “লক ডাউন ‘ লিখা কার্ড ঝুলিয়ে দিয়েছেন৷ কঠোর নজরদারি বাড়িয়েছেন। পাশাপাশি বিতরণ করা হয়েছে মাস্ক। 

কক্সবাজার ১৪ এপিবিএন অধিনায়ক (পুলিশ সুপার) মো : নাঈমুল হক জানান, ” উখিয়ার কুতুপালং, ইরানি পাহাড়, বালুখালী ফুটবল খেলার মাঠ, নৌকা মাঠসহ দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় এপিবিএন সদস্যরা লক ডাউন পালনে কঠোর ভূমিকা পালন করছে। ‘ 

কক্সবাজার ১৬ এপিবিএন অধিনায়ক (পুলিশ সুপার) তারিকুল ইসলাম তারিক জানান ” টেকনাফের চাকমারকুল, উনছিপ্রাং, নয়া পাড়া, শালবাগানসহ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে লক ডাউন পালনে কাজ করছে এপিবিএন এর একাধিক ইউনিট। এ ছাড়া ক্যাম্পে সিআইসি ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও কাজ করছে বলেও জানান তিনি  

শেয়ার করুনঃ





Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *