Main Menu

কাশ্মীরের মুসলিম জনগণ রক্ত দিয়ে আক্রান্ত হিন্দুদের জীবন বাঁচিয়েছে

নিউজ ডেস্কঃ

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, সন্ত্রাসবাদের জন্য কাশ্মীরের তরুণরা নানা ভোগান্তিতে পড়েছে। তারা আমাদের সঙ্গে যুক্ত হয়ে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত। তাদেরকে আমাদের প্রয়োজন।

 

 

তিনি বলেন, কাশ্মীরিরা অমরনাথ মন্দিরকে দেখভাল করে রাখে। এক বছর আগে সেখানে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কাশ্মীরের মুসলিম জনগণই লাইন ধরে রক্ত দিয়ে আক্রান্তদের ( হিন্দু তীর্থযাত্রীদের) জীবন বাঁচিয়েছে।

 

নরেন্দ্র মোদি বলেন, আমাদের লড়াই কাশ্মীরের জন্য, কাশ্মীরিদের বিরুদ্ধে নয়। আমরা কাশ্মীরি ভাইবোনদের সন্ত্রাসবাদ থেকে মুক্তি দিতে লড়াই করছি। রোববার দেশটির ক্ষমতাসীন বিজেপির একটি র‌্যালি শেষে দেয়া এক বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মোদি বলেন, কাশ্মীরি মানুষ দীর্ঘদিন ধরে সন্ত্রাসবাদের ভুক্তভোগী হয়েছে, এখন তাদের উচিত সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে আমাদের সমর্থন দেয়া।

 

মোদি বলেন, আমরা যদি যুদ্ধে বিজয়ী হতে চাই তাহলে ভুল করলে চলবে না। একজন সন্ত্রাসী শুধুই সন্ত্রাসী, এই সন্ত্রাসবাদের জন্যই কাশ্মীরের সাধারণ জনগণ ভোগান্তিতে পড়েছে। ভারতের বিগত সরকারগুলো (কাশ্মীর নিয়ে) যে বীজ বপন করেছিল সেই স্বপ্নপূরণ করবে বর্তমান সরকার।

মোদি বলেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে গোটা বিশ্ব ঐক্যবদ্ধ। আমরা সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে জড়িত অপরাধীদের দমন করতে বদ্ধপরিকর।

 

তিনি বলেন, আমরা ভারতকে বাঁচাতে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেব। ভারত এখন অনেক পরিবর্তন হয়েছে, যেখানে কোনো ধরণের যন্ত্রণা সহ্য করা হবে না। আমরা জানি কীভাবে সন্ত্রাসবাদকে উচিত শিক্ষা দিতে হয়। এটাই আমাদের ভারতের নতুন নীতি।

 

ভারতের প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা সেনাবাহিনীকে পূর্ণ স্বাধীনতা দিয়েছি। আমরা সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করছি, আমাদের শত্রুদের বিরুদ্ধে লড়ছি, আমরা মানবতার জন্য লড়ছি।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *