Main Menu

ফুলবাড়ীতে জমি বিরোধকে কেন্দ্র করে বোরো ধানের চারায় বিষাক্ত কীটনাশক দিয়েছে প্রতিপক্ষরা

মোঃ আফজাল হোসেন, দিনাজপুর প্রতিনিধি:
দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার এলুয়াড়ী ইউনিয়নের খাজাপুর গ্রামের গরীব কৃষকের রোপণকৃত ইরি বোরো ধানের চারায় প্রতিপক্ষরা বিষাক্ত কীটনাশক ব্যবহার করে পুড়িয়ে দিয়েছে। ফুলবাড়ী উপজেলার এলুয়াড়ী ইউপির খাজাপুর গ্রামের মোঃ জমির উদ্দিন কাজীর পুত্র মোঃ তৈবুর রহমান কাজী ও মোঃ মোজাম্মেল হক এর পুত্র মোঃ আনোয়ার হোসেন এর এক লিখিত অভিযোগে জানা যায়, উক্ত এলাকার জমি ক্রয়সূত্রে ঐ জমি তারা দীর্ঘদিন ধরে ভোগ দখল করে চাষাবাদ করে আসছে। গত জানুয়ারি মাসে তারা ১ একর জমিতে ইরি বোরো ধানের চারা রোপণ করেন।
গত ২৪শে ফেব্র“য়ারি রাত্রিতে ঐ গ্রামের প্রতিপক্ষরা দলবদ্ধ হয়ে ইরি বোরো ধানের জমিতে বিষাক্ত কীটনাশক ছিটিয়ে লাগানো ধানের চারা পুড়িয়ে দেন। এতে প্রায় তাদের ১ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়।
উল্লেখ্য যে, খাজাপুর মৌজার জেএল নং-৯, সি এস খতিয়ান নং-২৭৭, দাগ নং- ৩০৫, মোট জমি ৫১ শতক জমি ১৯৪৬ সালে ৩৪৬২ নং রেজিষ্ট্রী কৃত দলিল মূলে মৃত মছর উদ্দিন মোল্লা একই গ্রামের শাবিল কাজি নিকট হইতে ক্রয় করেন। উক্ত জমি মৃত শাবিল কাজী একই জমি ১৯৫৬ সালে ৭৮৮৯ নং দলিলে মোছাঃ বুলবুলি বিবি ও ফেলানী বিবির কাছে হেবাবিল রেওয়াজে হস্তান্তর করেন। উক্ত বুলবুলি ফেলানি ১০৫৬২ নং দলিলে ১৯৫৮ সালে মোঃ মোজাম্মেল মন্ডল ও মাহফুজ ওরফে ময়েজ উদ্দিনের নিকট খোশ কবলায় বিক্রয় করেন। উক্ত সম্পত্তি বর্তমান বিএস মাঠ জরিপে তাদের ছেলেদের নামে হয়। ৩০ ধারায় আপত্তির মামলায় ৬০৫ ও ৬০৭ ডিগ্রী লাভ করেন। ১নং এলুয়াড়ী ইউনিয়ন ভূমি অফিসে বাংলা ১৪২৩ সন পর্যন্ত ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ করেন।
অপরদিকে একই মৌজার ২২০ খতিয়ানে ২৮ দাগে ৫৭ শতক জমিতে লাগানো ইরি বোরো ধানের চারা একই ভাবে প্রতিপক্ষরা পুড়িয়ে দেয়। উক্ত জমি ১৯৫৮ সালে লাল মিঞা কাজীর পুত্র মোঃ জমির উদ্দিন কাজী বুলবুলি এবং ফেলানীর কাছ থেকে ক্রয় করেন ১২২০৩ নং দলিলে।
উক্ত ব্যক্তিরা ঐ জমির প্রকৃত মালিক হওয়ার পরেও প্রতিপক্ষরা প্রভাবশালী হওয়ায় তারা বার বার তাদের জমির আবাদ নষ্ট করে দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তারা। এ ব্যাপারে মোঃ তৈবুর রহমান, আনোয়ার হোসেন সহ ৪জন,বাদীহয়ে ফুলবাড়ী থানায় প্রতিপক্ষদের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *