Main Menu

দক্ষিণ সুনামগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় সাংবাদিকসহ ৪ জন আহত | বাংলারদর্পন

নাঈম তালুকদার,দক্ষিণ সুনামগঞ্জ :

সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম পাগলা ইউনিয়নের ইনাত নগর গ্রামে দুই কিশোরের ঝগড়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলা ও দাড়াঁলো অস্ত্রের আঘাতে সাংবাদিকসহ ৪ জন আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন,ইনাতনগর গ্রামের নুরুল হকের ছেলে দৈনিক বিজয় কণ্ঠের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধি মোঃ আলাল হোসেন(২২),তার ফুফু আছাব উদ্দিনের সহধর্মিনী মালেকা বেগম(৪০),তার ফুফাতো ভাই মাইনুল হক(১৭) ও আমজাদ আলীর ছেলে মোঃ  সুজন মিয়া(২০)। আহতদের মাথা ও শরীরের বিভিন্ন অংশে দাড়াঁলো অস্ত্রের আঘাত হওয়ায় তাৎক্ষণিক তাদেরকে সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে এনে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় এ ঘটনাটি ঘটে। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দৈনিক বিজয় কণ্ঠের উপজেলা প্রতিনিধি ও ইনাত নগর গ্রামের  আলাল হোসেনের ফুফাতো ভাই  মাইনুল হকের সাথে একই গ্রামের ছোবাহানের ছেলে জমির হোসেনের কথা কাটাকাটি  এবং হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর কিছুক্ষণ পরেই প্রতিপক্ষ ছোবাহান, তার ছেলে জমির হোসেন,কটু মিয়ার ছেলে ছায়েদ মিয়া,খালেদ, তাহিদ মিয়ার ছেলে সৈয়দ,দুলাল,দিলাল মিয়ার ছেলে সুনু মিয়া, নানু মিয়া , আব্দুল হকের ছেলে মইনুদ্দিন,আজির উদ্দিন ও মিছবা গংরা দেশীয় অন্ত্র নিয়ে সাংবাদিক আলাল হোসেনের বাড়িতে ও তার ফুফুর বাড়িতে গিয়ে হামলা চালায় এবং দাড়াঁলো অস্ত্র এবং কাঠের লাঠি দিয়ে দেড়ক মারধোর করতে থাকে। খবর পেয়ে সাংবাদিক আলাল হোসেন বাড়িতে গিয়ে বিষয়টি বুঝার চেষ্টা করলে প্রতিপক্ষরা তাকে ও বেদড়ক পিটাকে থাকে। এতে সাংবাদিক আলাল হোসেনসহ তার আত্মীয় স্বজনসহ ৪ জন আহত হন। খবর পেয়ে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। ঘটনার পর সাংবাদিক আলাল হোসেন দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানায় গিয়ে তার ও তার আত্মীয় স্বজনের উপর হামলার ঘটনাটি পুলিশকে অবহিত করে চিকিৎসার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে এনে ভর্তি করা হয়। তবে তার ফুফু মালেকা বেগমের মাথায় রামদার কোপে অধিক রক্ত খননে তিনি গুরুতর আহত হয়েছেন বলেন হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়।

এ ব্যাপারে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচার্জ মোঃ  ইফতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছে। তবে একজন সাংবাদিকের উপর হামলা খুবই দুঃখজনক। আগে তাদের উন্নত চিকিৎসা নেয়া প্রয়োজন এমন পরামর্শ দিয়ে তিনি আরো জানান,অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *