Main Menu

ফেনীতে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান:  হলুদ মরিচে কাউন ধান 

 

ফেনী |

ভোক্তাদের অধিকার সংরক্ষণে জেলা প্রশাসনের অঙ্গীকারের অংশ হিসেবে ফেনীর তাকিয়া রোডের হলুদ-মরিচ- মসলা ক্রাশিং কারখানায় অভিযান পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমান আদালত।

বুধবার দুপুরে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল রানার অভিযানে উঠে আসে ভয়াবহ চিত্র। হলুদ ও মরিচে মেশানো হচ্ছে কাউন ধান,ভালো মরিচের গুড়ার সাথে মেশানো হচ্ছে পচা মরিচের গুড়া।

এসময় বার্মিজ ফুডের মালিক মো: ইয়াসিনকে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে, পঁচা তেল ও পঁচা রঙ ব্যবহার করে চানাচুর প্রস্তুত করে ভোক্তাদের স্বাস্থ্যহানি ঘটানোর চেষ্টা করায় এক লক্ষ টাকা অর্থদন্ডে দন্ডিত করা হয়। আইয়ুব ক্রাশিং মিলের আইয়ুব আলীর কারখানায় মরিচের গুড়ায় ভেজাল মেশানোর দায়ে কারখানাটি সাময়িক বন্ধের নির্দেশনার নির্দেশ দেয় আদালত। ফরিদ ক্রাশিং মিলের মালিক শহিদুল ইসলাম শাহীনকে সম্পূর্ণ পঁচা মরিচ ব্যবহার করে গুড়া তৈরির দায়ে পঞ্চাশ হাজার টাকা অর্থদন্ডে দন্ডিত করা হয়।

এ ব্যাপারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল রানা বলেন, ভেজালের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসনের এ যুদ্ধ চলবে। ভোক্তাদের অধিকার রক্ষা ও সৎ ব্যবসায়ীদের স্বার্থ সরকার সংরক্ষণ করবে জেলা প্রশাসন।জব্দকৃত প্রায় সাড়ে আট মণ হলুদ মরিচ গুড়া ধ্বংস করা হয়। তাকিয়ে রোডের ব্যবসায়ীদের সতর্ক করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল রানা। অভিযানে আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শ্যামল চন্দ্র বসাক, স্যানিটারি ইন্সপেক্টর নুরুল আমিন এ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *