Main Menu

দলীয় আইনজীবীদের ভুলে মৃতপ্রায় বিএনপি |বাংলারদর্পন 

নিউজ ডেস্ক: দুর্নীতি, সহিংসতা, নাশকতা, রাষ্ট্রীয় সম্পদ ধ্বংসসহ একাধিক রাজনৈতিক মামলায় জর্জরিত বিএনপি। এতিমখানার টাকা চুরির মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়ে খোদ দলটির সভানেত্রী খালেদা জিয়া কারাগারে। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান একাধিক মামলায় সাজা নিয়ে বিদেশে পলাতক। লক্ষ লক্ষ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে হাজার হাজার মামলা। মামলার জট থেকে বিএনপিকে বাঁচাতে বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের কোনো বিকল্প নেই। অথচ দলের এই ক্রান্তিলগ্নে আইনজীবীরা শুরু করেছেন নতুন নতুন খেলা।

ব্যারিস্টার জমির উদ্দীন সরকার, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, অ্যাডভোকেট আমিনুল হক, অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন, অ্যাডভোকেট মীর নাসির, ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দীন খোকন, ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদল, খালেদা জিয়ার আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী মামলা পরিচালনা নিয়ে শুরু করেছেন গড়িমসি। ভুলপথে মামলা পরিচালনা, দলকে বিভ্রান্ত করার মতো কাজ করে বার বার খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমানকে মিস গাইড করছেন তারা। দলাদলি, পদের পেছনে ছুটাছুটি, অর্থের লোভে অন্ধ হয়ে এক সময়ের প্রিয় নেত্রীর মুক্তির আইনী প্রক্রিয়ায় তারা ব্যর্থ। দলের চেয়ে, নেত্রীর চেয়ে অর্থ-সম্পদ এবং পদের মর্যাদা আইনজীবীদের কাছে এখন বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। নেতৃত্বহীন বিএনপির অবস্থা অনেকটা মাঝিবিহীন নৌকার মতো। রাজনৈতিক কূল-কিনারা পাচ্ছে না বিএনপি। এর মধ্যে আবার সিনিয়র আইনজীবীদের কোন্দল আর ভুলে বিএনপি মৃতপ্রায়। যেন ভুলের সাগরে বিএনপি আরো তলিয়ে দিচ্ছেন আইনজীবীরা।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের এক প্রবীণ আইনজীবী বলেন, বিএনপির আইনজীবীরা পুরোটাই পথভ্রষ্ট। তাদের ভুলে বিএনপি নেত্রী আজ কারাবরণ করছেন। আইনজীবীরা হবেন একটি রাজনৈতিক দলের কাণ্ডারীর মতন। অথচ বিএনপির আইনজীবীরা সমিতির নির্বাচন, পদ পাওয়ার মতো তুচ্ছ বিষয় নিয়ে নিজেদের মধ্যে লড়াই করতে ব্যস্ত। বিএনপির ব্যর্থতার জন্য তাদের আইনজীবীরাও কম অংশে দায়ী নন। আমার ধারণা তাদের কর্মহীনতা ও কুপরামর্শে বিএনপির আজ মরণদশা। দলে নেই শৃঙ্খলা, নেই কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি। নেতারা সব পিঠ বাঁচাতে ব্যস্ত। বেশিরভাগ নেতারা সরকারের সাথে সমঝোতা করে সেফজোনে অবস্থান নিয়েছেন। নেতারা ব্যস্ত আখের গোছাতে। সুতরাং তাদের এই সব মূর্খতা ও দালালীর জন্য দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে খোদ খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে।

বিএনপিপন্থী এক সিনিয়র আইনজীবী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, দলের সংকটময় অবস্থায় আইনজীবীরা বার বার ব্যর্থতা ও অপরিপক্কতার পরিচয় দিচ্ছেন। নেত্রীর কারাবরণ, তার মুক্তির বিষয় নিয়ে তাদের মধ্যে কোনো বিকার নেই। সিনিয়র আইনজীবী নেতারা নেগোসিয়েশন করে অর্থ উপার্জন করার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন। দলের সংকটকে আরো তরান্বিত করেছেন দলীয় আইনজীবীরা। আইনী লড়াইয়ে নিজেদের সীমাবদ্ধতার কারণে বিএনপির মতো দলের আজ খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে চলতে হচ্ছে। সিনিয়র আইনজীবীদের মন্দ বুদ্ধির জন্য দল আজ ধুঁকে ধুঁকে মরছে। দলের উচিত এই সব দুমুখো সাপদের বহিষ্কার করা। এরা দালাল। নিজ স্বার্থে দলকে বিক্রি করে দেয় এরা। এরা সুযোগ সন্ধানী। এদের রাজনীতি করার অধিকার নেই।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *