Main Menu

আসন বণ্টন নিয়ে শরিক দলগুলোকে বিএনপির মিথ্যে আশ্বাস

নিউজ ডেস্ক: এপ্রিলের মধ্যে আসন বণ্টন নিয়ে ২০ দলীয় জোটের শরিক দলগুলোর আল্টিমেটামের পর তাদের মিথ্যে আশ্বাস দিয়েছে বিএনপি। জানা গেছে, শরিক দলগুলোকে খালেদা জিয়ার মুক্তি নিশ্চিত এবং নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টি হলে আসন নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সরল মনে শরিক দলগুলোর সিদ্ধান্ত মেনে নিলেও বিএনপির একাধিক সূত্রের মারফত জানা গেছে, কেবল পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতেই দলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান তারেক রহমানের নির্দেশে শরিক দলগুলোকে নামমাত্র আশ্বস্ত করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, দুর্নীতি মামলায় বেগম খালেদা জিয়ার কারাদণ্ড এবং দলীয় নেতাদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলে এমনিতেই বিএনপি সাংগঠনিকভাবে দুর্বল। এরমধ্যে শরিক দলগুলোও নিজেদের অবস্থান ঠিকঠাক করতে আসন ভাগাভাগি নিয়ে তোড়জোড় শুরু করে। এমনকি শরিক দলগুলো তিন শ’আসনে ছয় শ’প্রার্থী দেয়ার ক্ষমতা রাখে বলেও আল্টিমেটাম দেয়। যা দলের জন্য হুমকি ভেবে তারেক রহমান বিএনপির জরাজীর্ণ অবস্থায় জোটের অভ্যন্তরে বিরোধী পক্ষ তৈরি থেকে নিরাপদ অবস্থানে সরে আসতে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির একজন শীর্ষ নেতা বলেন, বিগত সময়ে দলীয় আন্দোলন-কর্মসূচিতে শরিক দলগুলোর নেতাদের উপস্থিতি এতই কম দেখা গেছে যে তারা জোটে আছে কী না তা বোঝার উপায় থাকে না। সারা বছর ঘাপটি মেরে বসে থেকে নির্বাচনের সময় এসে বলে আসন বন্টন চাই। তাদের মনে রাখা উচিত, দেশে এমন অনেক দল আছে যারা জোটে যোগ দিতে চায়।

এদিকে শরিক দলগুলোর অসক্রিয়তা ও নিশ্চুপতার প্রেক্ষিতে জোট থেকে অনেককে বের করে নতুন দলকে প্রাধান্য দেয়া হবে বলেও সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারেক রহমান।

এ বিষয়ে তারেক রহমানের ঘনিষ্ঠ একজন নেতা বলেন, জোটের শরিক নেতাদের অনেকেই চিহ্নিত করা হয়েছে যারা বলে, আমরা তোমাদের সঙ্গে আছি। অথচ কেবল ফায়দা লুটতেই তারা এসব কথা বলেন। তারেক ভাইয়া তাদের বিষয়ে ও তাদের দলের বিষয়ে জোটে থাকা না থাকা নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে উদ্যোগী হয়েছেন। এমন গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতে একটু সময় লাগবে বলে আসন বণ্টন নিয়ে শরিক দলগুলোকে আশ্বস্ত করা হয়েছে। দলের অভ্যন্তরীণ পরিস্থিতি আর একটু স্বাভাবিকে আসলেই এ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন তিনি। এর অংশ হিসেবে পুরাতন ও অসক্রিয় কয়েকটি দলকে বাদ দিয়ে বেশ কয়েকটি নতুন দলকে জোটের অভ্যন্তরে আনার জন্য আলোচনাও অব্যাহত রয়েছে।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *