Main Menu

সীতাকুন্ডে কালু বাহিনীর প্রধান গুলিবিদ্ধ : বিপুল পরিমান অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার 

 

চট্টগ্রাম ব্যুরো :

 

চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুন্ডের সলিমপুর ইউনিয়নের পাহাড়ী জনপদ জঙ্গল সলিমপুর রূপ নিয়েছে এক ভয়ঙ্কর সন্ত্রাসের জনপদে। সরকারি বনভূমি দখল, খুন, ধর্ষণ, হানাহানি, আধিপত্য বিস্তার, অপহরণসহ সব ধরনের অপরাধমূলক কার্যক্রম ‘‘জঙ্গল সলিমপুর’’ এলাকায় নিত্যদিনের ঘটনা। সীতাকুন্ডের দুর্গম জঙ্গল সলিমপুরের সরকারি পাহাড় কেটে গত এক যুগে প্রায় ১৬ হাজার অবৈধ বসতি গড়ে উঠেছে। ছিন্নমূল মানুষদের নামে বিভিন্ন সংগঠন গড়ে তুলে একটি চক্র পাহাড়ে ছোট ছোট প্লট বানিয়ে তা বেচাকেনা করছে। পাহাড় বিক্রির অর্জিত অর্থ দিয়ে গত কয়েক বছরে দেশের নানা প্রান্তের সন্ত্রাসীদের অভয়াশ্রম হিসেবে জঙ্গল সলিমপুরে বিশাল সন্ত্রাসী বাহিনী গড়ে তুলেছে বিভিন্ন সন্ত্রাসী বাহিনী। গত ২৩/১০/২০১৭ ইং তারিখে র‌্যাব-৭ কর্তৃক জংগল সলিমপুরের মশিউর বাহিনীর প্রধান কাজী মশিউর রহমানকে গ্রেফতারের পর মোঃ সাবেদুল হক @ কালু মহেষখালী হতে অবৈধ অস্ত্র ও গোলাবারুদ ক্রয় করে এলাকায় এককভাবে আধিপত্য বিস্তার করছে এবং সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালাচ্ছে। র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম এই শীর্ষ সন্ত্রাসী/ভূমিদস্যু মোঃ সাবেদুল হক @ কালুকে গ্রেফতারের লক্ষ্যে ব্যাপক গোয়েন্দা নজরদারী অব্যাহত রাখে। এরই প্রেক্ষিতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুন্ড থানাধীন জংগল সলিমপুরের ভূমিদস্যু/সন্ত্রাসী মোঃ সাবেদুল হক  কালু ও তার সহযোগীরা জঙ্গল সলিমপুরের ছিন্নমূল এলাকায় অবস্থান করছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে গত ১১ মার্চ ২০১৮ ইং তারিখ ১১৪৫ ঘটিকার সময় র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল বর্ণিত স্থানে অভিযান পরিচালনা করলে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা র‌্যাবকে লক্ষ করে এলোপাথারিভাবে গুলি বর্ষন শুরু করে। আতœরক্ষা ও সরকারী জানমাল রক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি বর্ষণ করে। গুলি বিনিময়ের এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটে পালিয়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থলে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। তাৎক্ষণিকভাবে আহত ব্যক্তিকে সীতাকুন্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশী করে ০১ টি ৭.৬৫ মিঃ মিঃ বিদেশী পিস্তল, ০৭ টি ওয়ান শুটারগান, ০৬ টি এসবিবিএল, ০১ টি পিস্তলের ম্যাগাজিন, ৪৮ রাউন্ড গুলি/কার্তুজ (৪৬ ী ১২ বোর এবং ০২ ী ৭.৬৫ মিঃ মিঃ পিস্তল), ১৫ রাউন্ড খালি খোসা, ০৮ টি রকেট প্লেয়ার এবং ০৯টি পোচ উদ্ধার করা হয়। পরে স্থানীয়দের মাধ্যমে জানা যায় যে, নিহত ব্যক্তি জঙ্গল সলিমপুরের শীর্ষ সন্ত্রাসী/ভূমিদস্যু মোঃ সাবেদুল হক @ কালু, পিতা-আনা মিয়া, গ্রাম-পশ্চিম ভূজপুর, থানা- ভূজপুর, জেলা- চট্টগ্রাম। উল্লেখ্য যে, তার বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম জেলার বিভিন্ন থানায় খুন, ডাকাতি, চাঁদাবাজি ও অপহরণসহ ০৭ টির অধিক মামলা রয়েছে বলে জানা যায়। উক্ত ঘটনায় র‌্যাবের ০১ জন সদস্য গুরুতর আহত হয়।

 

নিহত ব্যক্তি এবং উদ্ধারকৃত অস্ত্র সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের নিমিত্তে চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুন্ড থানায় হস্তান্তরের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *