Main Menu

এপ্রিলেই চট্টগ্রামে গ্যাস সংকটের অবসান হবে – কর্ণফুলী গ্যাসের এম.ডি

 

 

চট্টগ্রাম ব্যুরো :

 

দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র সভাপতি মাহবুবুল আলম ও সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ’র সাথে কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেড (কেজিডিসিএল)’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী আলী মোঃ আল-মামুন ও জেনারেল ম্যানেজার (মার্কেটিং) ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ আলী চৌধুরী ২০ ফেব্রুয়ারী সকালে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হন। এ সময় আগামী এপ্রিল মাসে মহেশখালী থেকে আমদানিকৃত এলএনজি সরবরাহের মাধ্যমে চট্টগ্রামে গ্যাস সংকটের অবসান হবে বলে কেজিডিসিএল’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক জানান।

 

মতবিনিময়কালে চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন-দেশের অর্থনীতির অগ্রযাত্রায় শিল্প ও বন্দর নগরী চট্টগ্রামের ভূমিকা অনস্বীকার্য। তাই চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী ও শিল্পোদ্যোক্তাদের নিরবচ্ছিন্ন গ্যাস সরবরাহ নিশ্চিত করা অতীব জরুরী। তিনি দীর্ঘদিনের গ্যাস সংকট প্রসংগ উল্লেখ করে চাহিদা ও সরবরাহ ব্যবস্থা ঠিক রাখার অনুরোধ জানান। চেম্বার সভাপতি আমদানিকৃত এলএনজি’র যৌক্তিক দাম নির্ধারণের উপর গুরুত্বারোপ করেন যাতে এতদঞ্চলের ব্যবসায়ীবৃন্দ প্রতিযোগিতামূলক সক্ষমতা না হারান। তিনি চিটাগাং চেম্বার ব্যবসায়ী ও জনস্বার্থে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে উল্লেখ করে চেম্বারের পক্ষ থেকে কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেড-কে সর্বপ্রকার সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন। চেম্বার সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ গ্রাহকদের সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিত করা এবং যে কোন ধরণের অনাকাঙ্খিত হয়রানি রোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানান। গ্যাস সংকট নিরসন হলে এ অঞ্চলসহ দেশের অর্থনীতিতে যুগান্তকারী পরিবর্তন সাধিত হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

 

কেজিডিসিএল’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক দেশের অর্থনীতিতে চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তাদের অবদান উল্লেখ করেন। তিনি বলেন-সরবরাহ লাইনের সমস্যা ও যথাযথ চাপের অভাবের কারণে এ অঞ্চলে চাহিদার সমপরিমাণ গ্যাস প্রদান সম্ভব হয় না। তাই বাণিজ্যিক কার্যক্রমকে গুরুত্ব দিয়ে আমদানিকৃত এলএনজি’র মাধ্যমে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এ অঞ্চলে গ্যাস  সরবরাহ করা হবে। পরবর্তীতে উদ্বৃত্ত গ্যাস দেশের অন্যান্য অঞ্চলের চাহিদা মেটাতে কাজে লাগানো হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

 

এদিকে চট্টগ্রাম গ্যাস সংকট নিরসনে জরুরী ভিত্তিতে ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানী বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরী’র প্রতি ২০ ফেব্রুয়ারি এক পত্রের মাধ্যমে আহবান জানিয়েছেন চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম। পত্রে তিনি বলেন-চট্টগ্রামে প্রায় ৫০০ এমএমসিএফটি চাহিদার বিপরীতে সম্প্রতি ২২০ এমএমসিএফটি পর্যন্ত সরবরাহ করা হলেও গত কয়েকদিন তাও হ্রাস পেয়েছে। ফলে আবাসিক ও শিল্প খাতের গ্রাহকরা চরম দুর্দশার শিকার হচ্ছেন। চট্টগ্রাম মহানগরীর গ্যাস নির্ভর হাজার হাজার বাসা বাড়ীতে গ্যাসের অভাবে রান্না কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে।

 

রপ্তানীমূখী আরএমজি, নীট এবং অন্যান্য শিল্প কারখানা গ্যাস সংকটজনিত দুর্ভোগের কারণে বিদেশী ক্রেতাদের চাহিদা মোতাবেক নির্ধারিত সময়ের মধ্যে রপ্তানীতব্য পণ্য উৎপাদন ও জাহাজীকরণ করতে ব্যর্থ হলে কার্যাদেশ হারানো, ব্যাংক ঋণের সুদ, শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতার দায়ভারে বিপুল আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হওয়ার আশংকা রয়েছে। অনুরূপভাবে গৃহস্থালী খাতে গ্যাসের অভাব ও গ্যাসের চাপ অত্যন্ত ক্ষীণ বিধায় রান্নার কাজ পুরোপুরি বন্ধ রয়েছে। হাসপাতাল/ক্লিনিকগুলোতেও গ্যাসের সরবরাহ অতীব অপ্রতুল। এতে নগরবাসীসহ বিনিয়োগকারীবৃন্দ মারাত্মক দুর্ভোগ আর ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন বলে পত্রে চেম্বার সভাপতি উল্লেখ করেন। দেশের বাণিজ্যিক কার্যক্রমের কেন্দ্রবিন্দু ও দ্বিতীয় বৃহত্তম মহানগরীর প্রায় ৫০ লক্ষেরও অধিক অধিবাসী এবং শিল্পোদ্যোক্তাদের নাজুক অবস্থা বিবেচনা করে এলএনজি সরবরাহ না আসা পর্যন্ত জরুরী ভিত্তিতে জাতীয় গ্রিড হতে চট্টগ্রামে পর্যাপ্ত গ্যাস সরবরাহ নিশ্চিত করতে জ্বালানী বিষয়ক উপদেষ্টার প্রতি আহবান জানান মাহবুবুল আলম।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *