Main Menu

সমালোচনা যেন একপেশে না হয়: গণমাধ্যম কর্মীদের উদ্দেশ্যে রাষ্ট্রপতি

 

বাসস :

 

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ ও মতামত পরিবেশনের মাধ্যমে সাম্য ও ন্যায়ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি পাঠককে সত্য ও কল্যাণের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সংবাদপত্র ও সাংবাদিকদের পবিত্র দায়িত্ব। অসত্য, উস্কানিমূলক কিংবা হলুদ সাংবাদিকতা কখনোই জনগণ ও গণতন্ত্রের বন্ধু হতে পারে না।

রাষ্ট্রপতি আরও বলেন, ‘আপনারা সমালোচনা করবেন। তবে তা যেন তথ্যভিত্তিক হয়। কোনোভাবেই যেন একপেশে না হয়। গঠনমূলক সমালোচনা সরকার পরিচালনা ও জাতি গঠনে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।’

রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে গতকাল রোববার ‘বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল পুরস্কার-২০১৮’ প্রদান অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি এসব কথা বলেন। পাঁচ সাংবাদিক এবং একটি প্রতিষ্ঠান এ পুরস্কার পেয়েছে।

পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন: সাংবাদিক, কলামিস্ট ও লেখক আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী (আজীবন সাফল্য পদক), দৈনিক সমকাল -এর বিশেষ সংবাদদাতা রাজীব নূর (গ্রামীণ সাংবাদিকতা), দৈনিক জনকণ্ঠ -এর সিনিয়র রিপোর্টার রাজন ভট্টাচার্য (উন্নয়ন সাংবাদিকতা), দৈনিক বরিশালের সময় -এর চিফ রিপোর্টার মর্জিনা বেগম (নারী সাংবাদিকতা), স্টাফ ফটোসাংবাদিক আলামিন লিয়ন (ফটোগ্রাফি) ও দৈনিক সংবাদ (প্রতিষ্ঠান)।

অনুষ্ঠানে বক্তৃতায় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ দেশের গণতন্ত্র ও সাংবিধানিক ধারা অব্যাহত রাখতে আরও তৎপর হতে সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, স্বাধীন ও মুক্ত গণমাধ্যম গণতন্ত্রকে সুসংহত করতে পারে, মানবাধিকার ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারে। সংবাদপত্রের দায়িত্বশীল ও পেশাদারি ভূমিকা জনগণকে সঠিক তথ্য প্রদান করে সচেতনতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করতে পারে।

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি মোহাম্মদ মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, তথ্য মন্ত্রণালয়-সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান এ কে এম রহমতউল্লাহ, ভারপ্রাপ্ত তথ্যসচিব মো. নাসির উদ্দিন আহমেদ, সমকাল -এর সম্পাদক গোলাম সারওয়ার অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *