Main Menu

গোবিন্দগঞ্জে সমকাল প্রতিনিধিকে দুঘন্টা আটকে রেখে মারধর : বিএমএসএফ’র প্রতিবাদ

ঢাকা : দৈনিক সমকালের গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ প্রতিনিধি এনামুল হককে সেখানকার তালুক কানুপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান আতিক দু ঘন্টা আটকে রেখে মারধর করেছে। এনামুলকে দু ঘণ্টার মতো আটকে রেখে মারধর করেছে চেয়ারম্যান আতিক ও তার দলবল। মুঠোফোনে এনামুল তার সহকর্মিদের জানিয়েছেন, তাঁর বাম কান দিয়ে রক্ত ঝরছে। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম (বিএমএসএফ)। এক বিবৃতিতে বিএমএসএফ কেন্দ্রীয় সভাপতি শহীদুল ইসলাম পাইলট ও সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর ঘটনার সাথে জড়িত চেয়ারম্যান ও তার দোসরদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছে। অন্যথায় কঠোর আন্দোলনেরও হুমকি দিয়েছে বিএমএসএফ।

 

এনামুলের অপরাধ তিনি ‘সাঁওতাল পল্লীতে আগুন : পুনর্বাসনের নামে প্রতারণা’ শীর্ষক খবরটি দৈনিক সমকালে প্রকাশ করেছেন, যা ২১ মে সমকালে প্রকাশিত হয়েছে। অবশ্য এনামুল সাঁওতাল পল্লীতে আগুনের পর থেকেই আছেন নিপীড়িত সাঁওতালদের সঙ্গে।

এনামুল গিয়েছিলেন ভিজিডির চাল বিতরণে অনিয়মের খবর সংগ্রহ করতে। তখন তালুক কানুপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান আতিক আটকে রেখে ওঁকে বেদম মারধর করেছেন। মূলত সোমবার সমকালে প্রকাশিত সাঁওতাল পল্লী থেকে উচ্ছেদ হওয়া আদিবাসীদের নিয়ে ‌’পুনর্বাসনের নামে প্রতারণা’ শীর্ষক প্রতিবেদনের কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে চেয়ারম্যান এ মারপিট করেছেন। গোবিন্দগঞ্জের সাংসদ থেকে শুরু করে তৃণমূলের সব জনপ্রতিনিধিই সাঁওতাল পল্লীতে আগুনের ঘটনায় ‘সব রসুনের গোড়া এক জায়গায়’। তাছাড়া এনামুল বিভিন্ন সময় এই চেয়ারম্যানের অনেক অনিয়ম নিয়ে প্রতিবেদন করেছেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য লোকাল গভর্নেন্স সাপোর্ট প্রজেক্টের (এলজিএসপি) অনিয়ম, টেন্ডার ছাড়া গাছ কাটা, ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দেওয়া ইত্যাদি। মারপিট করার সময় চেয়ারম্যান এসবও উল্লেখ করেন।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *