Main Menu

খতমে কোরআন মাহফিল গাউছুল আজমের গাউছিয়্যতের বহিঃপ্রকাশ | বাংলারদর্পন

মো. অালাউদ্দদীন, চট্টগ্রাম :

কাগতিয়া আলীয়া গাউছুল আজম দরবার শরীফের প্রতিষ্ঠাতা খলিলুল্লাহ আওলাদে মোস্তাফা খলিফায়ে রাসূল (দঃ) হযরত শায়খ ছৈয়্যদ গাউছুল আজম রাদিয়াল্লাহু আন্হু’র ঈছালে ছাওয়াব, এ দরবারের মহিয়সী রমণী জামানার রাবেয়া বসরী রূহানী আম্মাজান (রহঃ) এর সালানা ওফাত শরীফ ও পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে ঐতিহাসিক খতমে কোরআন মাহফিল গতকাল ৩রা রমজান রবিবার দরবার শরীফে অনুষ্ঠিত হয়। প্রকৃতির প্রতিকূল আবহাওয়া উপেক্ষা করে হাজার হাজার মুসলিম জনতা উপস্থিত হয় এ খতমে কোরআন মাহফিলে। দরবারের প্রতিষ্ঠাতা আওলাদে মোস্তফা, খলিফায়ে রাসূল (দ.) হযরত শায়খ ছৈয়দ গাউছুল আজম রাদ্বিয়াল্লাহু আন্হু আজ থেকে ৬ দশক পূর্বে পবিত্র রমজানে প্রতিষ্ঠা করেন ঐতিহাসিক খতমে কুরআনের মাহফিল। যা বর্তমানে বিশে^র অন্যতম খতমে কুরআন মাহফিলে পরিণত হয়েছে। প্রতিবছর এ মাহফিলকে কেন্দ্র করে হাজার হাজার খতমে কুরআন আদায় করা হয়। দেশ-বিদেশে অসংখ্য ওলামায়ে কেরাম, হাফিজে কুরআন, তরিক্বতপন্থী নারী-পুরুষ পূর্বঘোষিত তারিখ অনুযায়ী এ খতমে কুরআন আদায় করে থাকেন। ৩ রমজান ফজরের নামাজের পর হতে কাগতিয়া দরবার শরীফের রওজা পাক, জামে মসজিদ, মসজিদ চত্বর ও আশেপাশের এলাকা আলেম-ওলামা, হাফেজ, তরিক্বতপন্থী, সর্বস্তরের মুসলমানে ভরপুর হয় এবং বাদে নামাজে জোহর মিলাম-কিয়াম শেষে মুনাজাত করা হয়।

প্রাকৃতিক দূর্যোগের মধ্যেও চলতে থাকে কুরআনের সুমধুর তেলাওয়াত, বুখারী শরীফের পাঠ এবং ছোট ছোট বাচ্চাদের মুখে মুখে লা-ইলাহা-ইল্লাল্লাহ’র জয়ধ্বনি। এ যেন শান্তি বর্ষণের এক জান্নাতি বাগান। এ বছর সর্বমোট ১৯৯২০টি খতমে কোরআন এবং ১৭০৯টি খতমে তাহলীল আদায় করা হয়। যা বর্তমান বিশ্বে বিরল ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। এ ফজিলতপূর্ণ মাসে বর্তমান কঠিন সময়ে হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে এত বিশাল খতমে কুরআনের বাস্তবায়ন নিঃসন্দেহে গাউছুল আজমের গাউছিয়্যতের বহিঃপ্রকাশ। এ খতমে কুরআন বিশ^ মুসলিম উম্মাহকে কুরআনের দিকে ধাবিত করছে। বিশেষ করে এদেশের যুব সমাজ কুরআনের অমিয় সুধা পান করছে। যে কুরআন আল্লাহ্র শ্রেষ্ঠ বাণী, প্রিয় নবী (দ.) এর শ্রেষ্ঠ মু’জিজা এবং ইসলামের সংবিধান। খতমে কোরআন মাহফিলে বক্তব্য রাখেন মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটি বাংলাদেশ ওলামা পরিষদের সভাপতি হযরতুলহাজ্ব আল্লামা মুফতি মুহাম্মদ ইব্রাহিম হানফী, সচিব হযরতুলহাজ¦ আল্ল¥মা কাজী মুহাম্মদ আনোয়ারুল আলম ছিদ্দিকী ও আল্লামা মুহাম্মদ আশেকুর রহমান প্রমুখ।

খতমে কোরআন মাহফিল শেষে বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর শান্তি, দেশের অগ্রগতি ও উপস্থিত সকলের ইহকালীন কল্যাণ ও পরকালীন মুক্তি এবং দূর্যোগপূর্ণ পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণ কামনা করে মুনাজাত পরিচালনা করেন আওলাদে রাসূল মাননীয় মোর্শেদে আজম মাদ্দাজিল্লুল আলী ছাহেব।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *