Main Menu

উন্নয়নে ২০ বছর মেয়াদী পরিকল্পনা প্রণয়ন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা | বাংলারদর্পন 

নিউজ ডেস্ক :

২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত দেশে রূপান্তর করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত ‘গ্লোবাল সামিট অব উইমেন’ সম্মেলনে যোগ দিতে তিনি সরকারি সফরে তিন দিন সেখানে অবস্থান করেন। উক্ত সম্মেলনে তাঁকে নারী ক্ষমতায়ন, নারী শিক্ষা প্রসার ও ব্যাবসায়িক উদ্যোগের জন্য ‘গ্লোবাল উইম্যান লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড’ সম্মাননায় ভূষিত করা হয়। এই সম্মাননা প্রধানমন্ত্রী পৃথিবীর সকল নারীকে উৎসর্গ করেছেন। শুধু তাই নয় এই সম্মাননা গ্রহণের ফলে বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের প্রতি ইতিবাচক মনোভাব সৃষ্টিতে করবে।

সরকারি সফরে অস্ট্রেলিয়ার আওয়ামী লীগ প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আয়োজন করা হয়। সংবর্ধনায় তিনি বিএনপির শাসনামলে দুর্নীতি, অত্যাচার, আলবদর নেতাদের মন্ত্রী বানানো, যুদ্ধাপরাধের বিচার বন্ধ পাশাপাশি দেশ শাসনে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা প্রণয়নের কথা বলেন তিনি। আওয়ামী লীগ সরকারে অধীনে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের যোগ্যতা অর্জনের স্বীকৃতি ইতোমধ্যেই পেয়েছে বাংলাদেশ। সেই অনুযায়ী ,’রূপকল্প-২১’ ও ‘রূপকল্প-৪১’ প্রণয়নের কথা বলেন। উন্নয়নের এ ধারা অব্যাহত রাখতে ক্ষমতার ধারাবাহিকতা প্রয়োজন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে। জনগণ চায় না এরকম কোনো দল ক্ষমতায় আসুক যারা যুদ্ধাপরাধী, খুনি, জাতির পিতার হত্যাকারীদের পুরস্কৃত যারা করেছে, যারা দেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না, দেশের উন্নয়নে যাদের ঈর্ষা হয়।

আওয়ামীলীগ চায় দেশের ও জনগণের উন্নয়ন। প্রধানমন্ত্রী আশ্বাস দেন, ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ হবে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে উন্নীত হবে। বর্তমান সরকার দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহণ করেন। যাতে দেশে সত্যিকার উন্নয়ন হয়। অন্যান্য দলের মতো বুলি আওড়ানো উন্নয়নে আওয়ামী লীগ বিশ্বাস করেননা। দেশকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত করতে পদ্মা সেতু, হাইটেক পার্ক, এলএনজি টার্মিনাল, মাতারবাড়ি গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণ করেছেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বেঁচে থাকলে বাংলাদেশ আরও আগে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হতে পারত। আজ তাঁর অবর্তমানে সেই দায়িত্ব তুলে নিয়েছেন তাঁর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামী ২০ বছরের ভিতরেই পুরো পৃথিবীতে অনন্য অবস্থানে অধিষ্ঠিত হবে। তৈরী হবে জাতির পিতার স্বপ্নের বাংলাদেশ।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *