Main Menu

এমপি মোয়াজ্জেমের ছোবল থেকে ২৭ ঘন্টাপর মুক্তি মিলল সাংবাদিক সারোয়ার আজাদের 

ঢাকা : সারাদেশের সাংবাদিকদের তোপের মুখে ২৭ ঘন্টা মুক্তি মিলল সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের সাংবাদিক হাবিব সারোয়ার আজাদের। শনিবার রাত ১১টায় তাহিরপুর থানা পুলিশ তাকে ছেড়ে দেয় বলে বিএমএসএফ’র স্থানীয় সদস্যরা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। প্রচন্ড মারধরে আক্রান্ত আজাদ সুনামগঞ্জ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

স্থানীয় এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতন ও তার সহযোগিদের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও দূর্নীতির সংবাদ প্রকাশের জের ধরে হামলা ও ইয়াবা দিয়ে ফাঁসিয়ে দেয়ার অপচেষ্টা করা হয়েছিল। এ ঘটনার মধ্য দিয়ে এমপি মোয়াজ্জেম ও তার দোসর সহযোগিদের ব্যর্থ পরাজয় ঘটল।

শুক্রবার রাত ৯টায় বাদাঘাট বাজার থেকে প্রকাশ্যে মারধর করে ইয়াবা পাওয়া গেছে মর্মে প্রচার চালিয়ে সাংবাদিক হাবিব সারোয়ার আজাদকে বাজার কমিটির সেক্রেটারি ও ইউনিয়ন যুবলীগ আহবায়ক মাসুদ মিয়ার বাড়িতে নিয়ে প্রচন্ড মারধর করে। এ সময় তার কাছে ৩৫০ পিস ইয়াবা পাওয়া গেছে বলে থানা পুলিশকে জানায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ইয়াবাসহ তাহিরপুর থানায় নিয়ে যায়।

এ ঘটনার পর বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম (বিএমএসএফ) এর সেন্ট্রাল ফেইজবুক আইডি Bmsf Central থেকে ঘটনাটির ব্যাপারে দৃষ্টি দেয়ার জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আশু হস্তক্ষেপ দাবী করে একটি পোষ্ট দেয়া হলে সারাদেশে নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। অবশেষে ২৭ ঘন্টাপর পুলিশ হেফাজত থেকে তাকে মুক্তি দেয়া হয়। এদিকে নির্ভিক সাংবাদিক হাবিব সারোয়ার আজাদকে অহেতুক হয়রানি ও মারধর এবং লাঞ্ছিতের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবী করেছে বিএমএসএফ। রোববার এক বিবৃতিতে বিএমএসএফ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি শহীদুল ইসলাম পাইলট ও সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর বলেন ওই ঘটনার মদদদাতা এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন ও তার সাঙ্গপাঙ্গদের প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। যদি এর ব্যত্যয় ঘটে তাহলে তাহলে আইনী প্রক্রিয়ার মধ্যদিয়ে বিচার চাওয়া হবে।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *