Main Menu

রাউজানে নকল ঔষধ বিক্রি করায়  ১ লক্ষ টাকা জরিমানা

চট্টগ্রাম ব্যুরো :

 

চট্টগ্রামের রাউজানে নকল ও মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়া ঔষধ বিক্রি করার  ১ ব্যক্তিকে ১ লক্ষ জরিমানা  অনাদায়ে ৬ মাসের জেল দেয়া হয়েছে।

 

দন্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তি হলেন রাউজান মুন্সির ঘাটাস্থ সোনালী ফার্মেসীর মালিক পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের সুলতানপুর এলাকার টান্টু চৌধুরীর পুত্র লিটন।

 

(১ এপ্রিল) দুপুর ২টায় রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম হোসেন রেজা এ মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। এসময় তার কাছে (সোনালী ফার্মেসী) নকল ঔষধ (সেকলো-২০) সহ অসংখ্য মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়া যাওয়া ঔষধসহ অনুমতি না থাকা বেশ কিছু কোম্পানির ঔষধ পাওয়া যায়।

 

এ প্রসঙ্গে মো. সাজ্জাদ নামের এক ব্যক্তি বাংলাদর্পন কে বলেন, গত ১০ দিন আগে আমার বোন নিলুফার ইয়াসমিন তার স্বামীর জন্য বিদেশে ঔষধ পাঠানোর জন্য সোনালী ফার্মেসী থেকে ২ বাক্স (২০০ পিস) সেকলো-২০ ক্রয় করে। যে কোন কারণে তার স্বামী বিদেশে যেতে বিলম্ব হওয়ায় ঔষধ গুলো আমার বোন আমাকে খেতে দেয়। আমি ৪/৫ টি (সেকলো-২০)  খাবার পরও কোন উপকার না পাওয়াতে আমার ঔষধ গুলো আসল নকল নিয়ে সন্দেহ সৃষ্টি হয়। এমতাবস্তায় আমি ঔষধ গুলো পানিতে  দিয়ে পরীক্ষা করছিলাম দেখি নকল ঔষধ গুলো গলে যাচ্ছে না। তারপর আমি যে দোকান থেকে ঔষধ ক্রয় করেছিল (সোনালী ফার্মেসী) সে দোকানে গেলে ওরা আমাকে সরি বলে আরেক দোকান থেকে ২ বাক্স সেকলো-২০ এনে দেয়। পরে আমি বিষয়টি রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবগত করি।

 

এবিষয়ে জানতে চাইলে রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম হোসেন রেজা বাংলাদর্পন কে বলেন,

 

মো. সাজ্জাদ নামের এক ব্যক্তির সুত্রধরে আমি অভিযান পরিচালনা করি। এসময় তার কাছে অসংখ্য মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়া ও নকল ঔষধসহ অনুমতি না থাকা ঔষধ  পাওয়া যায়। যা কিনা মানুষের জীবন মরণের প্রশ্ন আসতে পারে। যার কারণে অপরাধীকে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের জেল দেয়া হয়েছে।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *