Main Menu

মাদারীপুরে সংবাদ প্রচারে’ সাংবাদিকদের হুমকি : সাংবাদিক সংগঠনের নিন্দা

 

নিউজ ডেস্ক :

জেলার রাজৈর উপজেলার মেসার্স সোহাগ অটোরাইস মিলের নিম্নমানের চাল নিয়ে, জনগনের সাথে প্রতারণার করে আসছে মিল কতৃপক্ষ। আর সেই সংবাদ বিভিন্ন গনমাধ্যমে প্রচার হয়। এর পরিপেক্ষিতে সোহাগ অটোরাইস মিলের মালিকের ছেলে ফোন করে জেলার কর্মরত সাংবাদিকদের মামলা দেওয়ার হুমকি দেয়। এ বিষয় মডেল থানায় ডায়রী করা হয়।

সরেজমিনে জানা গেছে, মাদারীপুর জেলার রাজৈর উপজেলার কামালদি ব্রিজের পচ্চিম পাশ সংলগ্ন মেসার্স সোহাগ অটোরাইস মিলের নিম্নমানের চাল কয়েকটি দেশ/বিদেশের নামীও ব্রান্ডের বস্তায় চাল ভরে বিক্রির মাধ্যমে প্রতারণার করে আসছে মিল মালিক কতৃপক্ষ। আর সেই সংবাদ গত ০৮/০৩/১৮ ইং তারিখে বিভিন্ন গনমাধ্যমে প্রচারিত হয়। সাধারন জনগন সোচ্চার হয়ে উঠে এবং যথাযত বিচার দাবি করে। গত শুক্রবার দুপুর ১২:০৩ মিনিটে সোহাগ অটোরাইস মিলের মালিক আঃ হালিম ফকিরের বড় ছেলে সোহাগ ফকির তার নিজ ব্যবহারিত মোবাইল ০১৭১২৮৩০৪০৪ নাম¦ার থেকে, জেলার কর্মরত এক সাংবাদিকের ০১৭১১১২৪৪২৫ নাম্বারে ফোন করে বলে আপনারা কেন এই সংবাদর প্রচার করেছেন, এবং বিভিন্ন হুমকি ধামক্কি দেয় এক পর্যায় বলে প্রস্তুত থাকেন, আপনাদের নামে মামলা দেওয়া হবে। জেলার কর্মরত সাংবাদিকদের মামলা দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়, এ বিষয়ে ৩ জনের নাম উলেক্ষ্যে করে শুক্রবার রাতে সাংবাদিকরা মাদারীপুর সদর মডেল থানায় সাধারন ডায়রী করে। ডায়রী নং ৪১৮।

এ বিষয়ে মাদারীপুর প্রেসক্লাবের আহবায়ক শাজাহান খান বলেন, জেলার কর্মরত সাংবাদিকদের মামলার হুমকি দেওয়ার তীব্র প্রতিবাদ জানাই ও যথাযত বিচার দাবি করছি।

বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম মাদারীপুর জেলা শাখার প্রস্তাবিত সভাপতি ইয়াকুব খান শিশির এঘটনার তীব্র নিন্দা জানান এবং অটোরাইস মিলের মালিক হালিম ফকির ও তার ছেলে সোহাগ ফকিরসহ জরিতদের দৃস্টান্তমুলক বিচার দাবি করেন।

এব্যাপারে মাদারীপুর সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল হাসান এর কাছে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, জেলার কর্মরত সাংবাদিকদের মোবাবাইল ফোনে মামলা দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। এ বিষয় ৩ জনের নাম উলেক্ষ্যে করে, থানায় সাধারন ডায়রী করা হয়েছে। তদন্ত করে অভিযুক্তদের আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *