Main Menu

এনসিসির গণবিজ্ঞপ্তি : নামফলক-সাইনবোর্ড বাংলায় প্রতিস্থাপনের নির্দেশ

 

নিজস্ব প্রতিবেদক :

২৮ জানুয়ারি ২০১৮,।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) আওতাধীন এলাকাগুলোতে ইংরেজিসহ অন্য ভাষায় লেখা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নামফলক, সাইনবোর্ড, ব্যানার ও বিলবোর্ড আগামী সাত দিনের মধ্যে বাংলায় প্রতিস্থাপনের নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তবে দূতাবাস, বিদেশি সংস্থা ও সংশ্লিষ্ট কিছু প্রতিষ্ঠান এ নির্দেশের বাইরে থাকবে।

দুটি জাতীয় দৈনিকসহ ডিএনসিসির ওয়েবসাইট ও ফেসবুক পেজে আজ রোববার এ বিষয়ে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

ডিএনসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা এ এস এম মামুন বলেন, নির্দেশ কতটা বাস্তবায়ন হলো তা তদারকির জন্য গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশের সাত দিন পর থেকে একযোগে বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হবে।

ওই গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, হাইকোর্ট বিভাগের রিট পিটিশনে (১৬৯৬/২০১৪) প্রদত্ত আদেশ অনুযায়ী সব প্রতিষ্ঠানের (দূতাবাস, বিদেশি সংস্থা ও সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্র ব্যতীত) নামফলক, সাইনবোর্ড-বিলবোর্ড, ব্যানার ইত্যাদি বাংলায় লেখা বাধ্যতামূলক। কিন্তু লক্ষ করা যাচ্ছে কোনো কোনো প্রতিষ্ঠানের নামফলক, সাইনবোর্ড, বিলবোর্ড, ব্যানার ইত্যাদি ইংরেজি ও অন্যান্য বিদেশি ভাষায় লেখা হয়েছে।

গণবিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, যেসব প্রতিষ্ঠানের (দূতাবাস, বিদেশি সংস্থা ও সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্র ব্যতীত) নামফলক, সাইনবোর্ড, বিলবোর্ড, ব্যানার ইত্যাদি এখনো বাংলায় লেখা হয়নি, তা নিজ উদ্যোগে অপসারণ করে আগামী সাত দিনের মধ্যে বাংলায় লিখে প্রতিস্থাপন করতে হবে। না হলে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ এক আদেশে দেশের সব সাইনবোর্ড, বিলবোর্ড, ব্যানার, গাড়ির নম্বরপ্লেট, সরকারি দপ্তরের নামফলক এবং গণমাধ্যমে ইংরেজি বিজ্ঞাপন ও মিশ্র ভাষার ব্যবহার বন্ধ করতে সরকারকে ব্যবস্থা নিতে বলেন। সংবিধানের ৩ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রভাষা বাংলা। এ ছাড়া বাংলা ভাষা প্রচলন আইন, ১৯৮৭-এর ৩ ধারায়ও সরকারি অফিস, আদালত, আধা সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে চিঠিপত্র, আইন-আদালতের সওয়াল-জবাব এবং অন্যান্য কাজে বাংলার ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

আদালতের আদেশের তিন মাস পর ২০১৪ সালের ১৪ মে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সিটি করপোরেশন, পৌরসভা ও ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডগুলোকে আদেশটি কার্যকর করতে বলে। কিন্তু তা না হওয়ায় ২০১৫ সালের ১৮ আগস্ট আদালত কড়া ভাষায় মন্তব্য করেন, বাংলা ব্যবহারে দৃশ্যত কোনো অগ্রগতি নেই। পরে ২০১৬ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি এক চিঠির মাধ্যমে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে সাইনবোর্ড, বিলবোর্ড, ব্যানার, গাড়ির নম্বরপ্লেটে বাংলা ভাষার ব্যবহার নিশ্চিত করার অনুরোধ জানায় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবর লেখা ওই চিঠিতে বলা হয়, সাইনবোর্ড, বিলবোর্ড, ব্যানার ইংরেজির স্থলে বাংলায় প্রতিস্থাপিত হয়েছে বলে দেখা যায় না। এটা বাংলা ভাষা প্রচলন আইন, হাইকোর্টের রুল ও আদেশের পরিপন্থী।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *