Main Menu

শিয়া-সুন্নি নামে কোনো ধর্ম নেই, ধর্ম শুধু ইসলাম: এরদোগান – বাংলারদর্পন   

ডেস্ক রিপোর্ট :

 

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেসেপ তাইয়িপ এরদোগান বলেছেন, সুন্নি বা শিয়া নামে কোনো ধর্ম নেই, আমাদের ধর্ম একটাই- ইসলাম।

আফ্রিকা সফরে তিউনিসিয়া বিমানবন্দরে পৌঁছে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি একথা বলেন। খবর: ডেইলি জং।

পশ্চিমা দেশগুলো মুসলমানদের বিভক্ত করার চেষ্টায় লেগে আছে মন্তব্য করে এরদোগান বলেন, পাশ্চাত্যের মিডিয়াগুলো তাকে এবং তার দেশকে সুন্নি মুসলমান নামে ডাকে।

‘কিন্তু আমরা সুন্নি বা শিয়া নামের বিভক্তির অংশ হব না। কারণ আমরা কেবল ইসলামকেই ধর্ম মনে করি। এমন চক্রান্তমূলক খেলা থেকে খুবই সতর্ক থাকা জরুরি বলে মনে করি’ যোগ করেন তিনি।

জেরুজালেম বিষয়ে ইস্তাম্বুলে অনুষ্ঠিত ওআইসির জরুরি বৈঠকের মূল্যায়ন করতে গিয়ে তুর্কি প্রেসিডেন্ট কিছু আরব দেশের দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে আফসোস করেন। তিনি বলেন, কিছু আরব দেশ অবিবেচনার পরিচয় দিয়েছে। এরপরও বৈঠকে তাদের অংশগ্রহণ সান্ত্বনাদায়ক।পরিবর্তন

ভিডিও > বাংলাদেশ সরকার নামে মুসলিম হলেও ভারতের হিন্দুদের হ​য়ে কাজ করছেঃ জাকির নায়েক………………..

এবার বাংলাদেশ সরকারকে উচিত জবাব দিলেন জাকির নায়েক। ভারত সরকার নাহয় হিন্দু সে পিস টিভি বন্ধ করেছে তার দেশের হিন্দুরা মুসলমান হয়ে যাচ্ছে।কিন্তু বাংলাদেশ সরকারতো মুসলিম, বাংলাদেশের মেজরটি মুসলিম তাহলে তিনি কেন পিস টিভি বন্ধ করলে? ইতিপুর্বে বাংলাদেশ সরকারকে চ্যালেঞ্জ দিয়ে আলোচিত ইসলামী ধর্মপ্রচারক জাকির নায়েক বলেছেন, তিনি কখনোই কোনো সন্ত্রাসী কাজে উৎসাহ দেননি।

তিনি বলেন, জিহাদের নামে আত্মঘাতী হামলা চালিয়ে নিরপরাধ মানুষকে হত্যা করা ইসলামে দ্বিতীয় বড় পাপ। এটা ইসলামে নিষিদ্ধ, হারাম।বাংলাদেশ সরকারকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে জাকির নায়েক বলেন, তার ভাষণের কোনো অংশটা সেদেশে অশান্তি সৃষ্টি করতে পারে বলে অভিযোগ তোলা হচ্ছে, সেই পুরো অনুষ্ঠানটা দেখানো হোক।ভারতীয় সাংবাদিকদের সঙ্গে সৌদি আরবের মদিনা থেকে স্কাইপের মাধ্যমে তিনি এক সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে জাকির নায়েক বলেন, তিনি তার কোনো ভাষণেই সন্ত্রাসের পক্ষে কথা বলেননি।তার দাবি, অনেক ক্ষেত্রে ‘ডক্টরড টেপ’ অর্থাৎ কাটছাঁট করা ভিডিও দেখেই তার বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে মদদ দেয়ার অভিযোগ করছে সংবাদমাধ্যম।জাকির নায়েক বলেন, ‘সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরছে এরকম ছোট ছোট কিছু ভিডিও ক্লিপ দেখেই এ ধরনের অভিযোগ করা হচ্ছে। কয়েকটা ভিডিও ক্লিপে আবার আমার ভাষণের একটা-দুটো বাক্য অপ্রাসঙ্গিকভাবে তুলে নিয়ে প্রচার করা হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘আমি চ্যালেঞ্জ করে বলছি- পিস টিভিতে দেয়া আমার পুরো ভাষণগুলো কেউ দেখাক। তারপরে বলুক যে, কোন অংশটা ভারত বা বাংলাদেশের জন্য অশান্তি তৈরি করতে পারে?’তথাকথিত ইসলামিক স্টেট-আইএসের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে সম্প্রতি ভারতে আটক এক যুবকের বাবা অভিযোগ করেছেন, তার ছেলে জাকির নায়েকের সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে দেখা করেছিল।এছাড়াও আইএসের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ভারতে আরও কয়েকজনের পরিবার অভিযোগ করেছে, তারা জাকির নায়েকের বক্তব্য দেখেই সন্ত্রাসী কার্যকলাপে উদ্বুদ্ধ হয়েছিল।

এ প্রসঙ্গে এই ধর্মপ্রচারক বলেন, তিনি প্রতি মাসে কয়েক হাজার মানুষের সঙ্গে দেখা করেন। তারা তার সঙ্গে ছবিও তোলেন। কিন্তু তাদের মধ্যে মাত্র হাতে গোনা কয়েকজনকেই হয়তো তিনি ব্যক্তিগতভাবে চেনেন।তিনি বলেন, ‘জ্ঞাতসারে আমি কোনো সন্ত্রাসবাদীর সঙ্গে দেখা করিনি। কিন্তু হাজার হাজার মানুষের মধ্যে যদি এমন ব্যক্তি কেউ থেকে থাকেন যিনি সন্ত্রাসবাদী, তাহলে তো সেটা আমার পক্ষে বোঝা সম্ভব নয়!’

ভারতে তার পিস টিভি চ্যানেলটি দেখানোর অনুমতি কেন দেয়নি সরকার সেই প্রসঙ্গে জাকির নায়েক বলেন, ‘কেন অনুমতি দেয়া হয়নি, তার একটা কারণ আমি আন্দাজ করতে পারি। পিস টিভি একটা মুসলিম চ্যানেল, এটা ইসলামি চ্যানেল; সেজন্যই অনুমতি দেয়নি ভারত সরকার।’ মুম্বাই পুলিশ জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে যে তদন্ত চালাচ্ছে, তিনি সেই তদন্তের মুখোমুখি হতেও রাজি। তবে ওই তদন্তের কথা তিনি শুধু সংবাদমাধ্যমেই জেনেছেন। সরকারি পর্যায়ে কেউ তার সঙ্গে এখনও যোগাযোগ করেনি বলে তিনি জানান।

প্রসঙ্গত, ভারতে পিস টিভি’র সম্প্রচার বন্ধ করে দেয়ার পর বাংলাদেশ সরকারও একই পথে হাঁটে। এনিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে ব্যাপক বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *