Main Menu

বিএনপি’র ঘুণে ধরা স্থায়ী কমিটির সংস্কার প্রয়োজন | বাংলারদর্পন

প্রতিবেদক >>>
আন্দোলন-সংগ্রাম ও দলীয় চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তির কর্মসূচিতে নিষ্ক্রিয় ও ব্যর্থ নেতৃত্বের সংস্কার চায় বিএনপির তৃণমূল।তারা মনে করে, খালেদা জিয়ার কারাগারে থাকা অবস্থায় দলটির সর্বোচ্চ জাতীয় স্থায়ী কমিটির অনেক নেতার দায়িত্ব অবহেলা, অদক্ষতা ও অযোগ্যতা লক্ষ্য করা গেছে। এসব নেতাদের ভয়-ভীতি ও ব্যক্তিস্বার্থ বিএনপিকে সাংগঠনিকভাবে দুর্বল ও ক্ষতিগ্রস্ত করেছে। তাদের সে সময়ের কর্মকাণ্ড ও তৎপরতাকে সাংগঠনিকভাবে অপরাধ বলে গণ্য করা উচিত। কেননা এসব নেতাদের কারণেই বিএনপির আজ দুর্বস্থা।তারা আরো বলেন, দলের স্থায়ী কমিটি এখন ব্যবসায়ী, বয়স্ক ও অসুস্থ নেতাদের দিয়ে ভরা। এখানে রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত দেয়ার মতো কেউ নাই। সশরীরে ২ ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকতে পারেন না। এ সমস্ত কারণেই স্থায়ী কমিটির সংস্কার চান তৃণমূল বিএনপি নেতারা।দীর্ঘ ২৫ মাস কারাবরণের পর রাজনীতি থেকে অনেকটাই দূরে সরে আছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এছাড়া একাধিক মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত হয়ে দীর্ঘদিন ধরে লন্ডনে অবস্থান করছেন দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।সম্প্রতি যদিও দলের দু’জন ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুকে স্থায়ী কমিটিতে আনা হয়েছে, তবে তা যথেষ্ট নয়। ফলে দলে নেতৃত্ব দেয়ার মতো এখন কেউ নেই। এই অবস্থায় দলকে চাঙা করতে বা দলের গতি ফেরাতে স্থায়ী কমিটিতে আমূল পরিবর্তন চায় বিএনপির তৃণমূল।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপি’র এক সময়ের শীর্ষ প্রভাবশালী নেতা বলেন, বিএনপি’র ঘুণে ধরা স্থায়ী কমিটিতে সংস্কার প্রয়োজন। এই কমিটি থেকে মীরজাফর ও অন্যদলের এজেন্ডা বাস্তবায়নকারীদর সরিয়ে ত্যাগী, চৌকষ ও যোগ্য নেতাদের স্থান দিতে হবে। কেননা একটা পরিবারের যদি অভিভাবক ঠিক না থাকে তাহলে ওই পরিবারের অভিভাবকদের অধীনস্থ কোনো সন্তানই সঠিক পথে পরিচালিত হবে না।

তাই নেতৃত্ব সঠিকভাবে না দেয়া হলে দল সঠিকভাবে পরিচালিত হবে না এটাই বাস্তবতা। যতদিন না পর্যন্ত স্থায়ী কমিটিতে বড় সংস্কার হবে ততদিন পর্যন্ত এ দলের ভাগ্য পরিবর্তন হবে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এ বিষয়ে দলটির একাধিক রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও বুদ্ধিজীবী বলেন, আন্দোলন সংগ্রামে সফল হওয়ার জন্য তরুণ, দক্ষ ও চৌকষ নেতা প্রয়োজন। বিএনপিতে এখন এটার বড়ই অভাব। তারা বলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটি এখন বয়স্ক, অসুস্থ ও নিষ্ক্রিয় নেতাদের দিয়ে ভরা। এখানে সংস্কার প্রয়োজন। নতুনদের হাতে দলের দায়িত্ব তুলে দিতে হবে।

শেয়ার করুনঃ





Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *