Main Menu

ছাত্রলীগকে দখল করে নিয়েছে ছাত্রদল ও শিবির | বাংলারদর্পন

নিজস্ব প্রতিবেদক :

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের এক তৃতীয়াংশই অনুপ্রবেশকারী। এদের সঙ্গে জামাত এবং বিএনপির নানা রকম সম্পৃক্ততা রয়েছে- এরকম অভিমত ব্যক্ত করেছে একাধিক গোয়েন্দা সংস্থা। একটি গোয়েন্দা সংস্থা বলেছে, ‘বিএনপি-জামাত ছাত্রলীগকে দখল করে ফেলেছে। বিভিন্ন সন্ত্রাস চাঁদাবাজি এবং অসামাজিক কাজে এদের ব্যবহার করা হচ্ছে। সরকারকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলার জন্য ছাত্রলীগে থাকা বিএনপি-জামাতের এজেন্টরা কাজ করছে।’

কোটা সংস্কারে আন্দোলন, বিভিন্ন স্থানে ছাত্রলীগের নামে চাদাবাজি, সন্ত্রাস এবং আসন্ন ছাত্রলীগের সম্মেলনের প্রেক্ষাপটে তিনটি গোয়েন্দা সংস্থা অনুসন্ধান করে। তিনটি সংস্থাই সরকারের কাছে আলাদা আলাদা ভাবে প্রতিবেদন দিয়েছে। তবে মজার ব্যাপার হলো, তিনটি প্রতিবেদনেই বলা হয়েছে, কোনো রকম যাচাই বাচাই ছাড়া ছাত্রলীগে যোগদানের সুযোগ সৃষ্টি সংগঠনটিকে হুমকির মধ্যে ঠেলে দিয়েছে।

গোয়েন্দা অনুসন্ধানে দেখা গেছে, ২০১৪’র পর থেকে বিএনপি-জামাত পরিকল্পিত ভাবে ছাত্রলীগে কর্মী ঢোকায়। এরা এখন প্রাচীনতম এই সংগঠনের নিয়ন্ত্রণ ভার নিয়েছে। প্রতিবেদেনের একটিতে বলা হয়েছে, ছাত্রলীগে প্রবেশের কোনো আদর্শিক মানদণ্ড নেই। বিভিন্ন সুবিধা ও আর্থিক লাভের জন্য অনেকে ছাত্রলীগে ঢুকছে। আর সরকারকে বেকায়দায় ফেলার জন্য একটি শক্তিশালী গ্রুপ দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রলীগে নিজেদের লোক ঢুকিয়েছে। একটি গোয়েন্দা সংস্থা মনে করছে, ছাত্রলীগকে এই অবস্থায় নিয়ে যাওয়ার পেছনে তারেক জিয়ার হাতও থাকতে পারে।

গোয়েন্দা সংস্থাগুলো, অবিলম্বে ছাত্রলীগ কর্মীদের নিবন্ধণ করার তাগিদ দিয়েছে। কর্মীদের তথ্যভান্ডার করার সুপারিশ করা হয়েছে। ছাত্রলীগে যোগদানের আগে যাচাই বাছাইয়ের আধুনিক পদ্ধতি প্রবর্তনের ওপর জোর দেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *