Main Menu

বিএনপির মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জ ও গুলিবর্ষণ: গুলিবিদ্ধসহ আহত শতাধিক

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি: হবিগঞ্জে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জ ও রাবার বুলেটে সাংবাদিকসহ প্রায় শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার সকাল ১১টায় জেলা বিএনপি উদ্যোগে শহরে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করলে এঘটনা ঘটে । পুলিশের লাঠিচার্জে হবিগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জি কে গউছ, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মিয়া মোঃ ইলিয়াছ, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি এমদাদুল হক ইমরান,সহ আহত হয়েছেন শতাধিক নেতাকর্মী ।

গুলিবিদ্ধ হয়েছেন জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি জিল¬ুর রহমান, সদর উপজেলা যুবদলের সহ-সভাপতি অলিউর রহমান অলি, জেলা যুবদল নেতা বাদশা সিদ্দিকী, আবুল বাশার ইসা, নুরুল, হাজী মতিন ও বিজয় টিভি’র জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক ইলিয়াছ আলী মাসুকসহ ৩০ জন। গুরুতর আহতাবস্থায় যুবদল কর্মী আবুল বাশার ইসা ও নুরুলকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

অপরদিকে গ্রেফতারের ভয়ে আহতরা স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি হননি। এ ঘটনায় ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঙ্গলবার সকাল ১১টায় শহরের শায়েস্তানগরস্থ জেলা বিএনপির কার্যালয় থেকে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে মেয়র জি কে গউছের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। এ সময় পুলিশ মিছিল করতে বাঁধা দেয়।

এ নিয়ে মেয়র জি কে গউছের সাথে সদর থানার ওসি ইয়াছিনুল হক এর সাথে বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ মেয়র জি কে গউছকে আটক করলে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠে। এরপর নেতাকর্মীদের বাঁধার মুখে জি কে গউছকে ছেড়ে দেয় পুলিশ।

এসময় মিছিলকে ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ লাঠিচার্জ ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। এতে সাংবাদিকসহ প্রায় ৫০ নেতাকর্মী আহত হন। জেলা বিএনপি নেতা এডভোকেট গুলজার খান জানান, জেলা বিএনপির শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিল আটকে দেয় পুলিশ। এরপর বিএনপি নেতাকর্মীদের লক্ষ্য করে নির্বিচারে লাঠিচার্জ ও গুলি করেছে পুলিশ। এতে বিএনপি’র অসংখ্য নেতাকর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

গুরুতর আহতাবস্থায় ২ যুবদল কর্মীকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ইয়াছিনুল হক জানান, পরিস্থিতি শান্ত করতে ৫৪ রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করা হয়েছে।

এছাড়াও বিএনপি’র ৩ কর্মীকে আটক করা হয়েছে। তবে তিনি নাম বলতে চাননি। বর্তমানে শহরের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে এবং ঘটনাস্থরে প্রচুর পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *